একুশে পদক প্রাপ্ত কথাসাহিত্যিক রিজিয়া রহমান মারা গেছেন

আমাদের নতুন সময় : 17/08/2019

দেবদুলাল মুন্না : গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কথাসাহিত্যিক রিজিয়া রহমান মারা গেছেন।(ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। তিনি দীর্ঘদিন থেকে ক্যানসার ও কিডনি জটিলতায় ভুগছিলেন।

রিজিয়া রহমান  ১৯৩৯ সালের ২৮ ডিসেম্বর ভারতের কলকাতার ভবানীপুরে এক সংস্কৃতিমনা পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। উপন্যাসে অবদানের জন্য ১৯৭৮ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন তিনি। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার চলতি বছর তাকে একুশে পদকে ভূষিত করে। বাংলা একাডেমি পুরস্কার ও একুশে পদক ছাড়াও অসংখ্য স্বীকৃতি আছে রিজিয়া রহমানের ঝুলিতে। এর মধ্যে আছে যশোর সাহিত্য পরিষদ পুরস্কার, হুমায়ুন কাদির স্মৃতি সাহিত্য পুরস্কার, আসফ-উদ-দৌলা রেজা স্মৃতি পুরস্কার, বাংলাদেশ লেখক সংঘ সাহিত্য পুরস্কার, কমর মুশতারি সাহিত্য পদক, অনন্যা সাহিত্য পুরস্কার ও নাসিরউদ্দীন স্বর্ণপদক। ছয় দশক ধরে বাংলা গল্প, কবিতা, প্রবন্ধ, রম্যরচনা ও শিশুসাহিত্যে অবদান রাখেন তিনি।

রিজিয়া রহমান ইডেন মহিলা কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন। ১৯৬৫ সালে এই কলেজ থেকেই স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। পরে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন।

সাহিত্য পত্রিকা ‘ত্রিভুজ’-এর সম্পাদক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন রিজিয়া রহমান। জাতীয় জাদুঘরের পরিচালনা বোর্ডের  ট্রাস্টি ও জাতীয় গ্রন্থ কেন্দ্রের কার্য পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। তিন বছর বাংলা একাডেমির কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্যও ছিলেন।

রিজিয়া রহমানের গল্পগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে অগ্নিস্বাক্ষরা, নির্বাচিত গল্প, চার দশকের গল্প ও দূরে কোথাও। উলে�খযোগ্য উপন্যাস- ঘর ভাঙা ঘর, উত্তর পুরুষ, বং থেকে বাংলা, অরণ্যের কাছে, অলিখিত উপাখ্যান, শিলায় শিলায় আগুন, একাল চিরকাল, সবুজ পাহাড়, একটি ফুলের জন্য, বাঘবন্দী, ও উৎসে ফেরা।

 

 

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]