• প্রচ্ছদ » আমাদের বিশ্ব » সুদানে বেসামরিক সরকারের লক্ষ্যে গণতন্ত্রপন্থীদের সঙ্গে ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে সেনাবাহিনী


সুদানে বেসামরিক সরকারের লক্ষ্যে গণতন্ত্রপন্থীদের সঙ্গে ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে সেনাবাহিনী

আমাদের নতুন সময় : 18/08/2019

লিহান লিমা : সুদানের ক্ষমতাসীন সামরিক কাউন্সিল ও গণতন্ত্রপন্থী বিরোধীদের জোট সাংবিধানিক সরকারের লক্ষ্যে গতকাল শনিবার দেশটির রাজধানী খার্তুমে একটি ঐতিহাসিক ক্ষমতা-বণ্টন চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। এর ফলে তিন দশক ধরে চলা একনায়কতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা, আন্দোলন ও বিক্ষোভের পর দেশটিতে বে-সামরিক সরকার গঠনের পথ তৈরি হলো। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, এই চুক্তির ফলে দেশটিতে কয়েক মাস ধরে চলে আসা অসহিঞ্চুতা কমবে এবং বে-সামরিক সরকারের শাসন প্রতিষ্ঠার পথ তৈরি হবে।

সুদানের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তি বলে খ্যাত কমান্ডার মোহাম্মদ হামাদন ‘হেমেথি’ দাগোলো এই চুক্তির প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থাকার অঙ্গীকার করেছেন। এপ্রিলে দীর্ঘদিনের শাসক প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশিরকে উৎখাত করার পর সেনাবাহিনী সামরিক কাউন্সিল গঠন করলে জনগণ তা প্রত্যাখ্যান করে বে-সামরিক সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের দাবিতে আন্দোলন অব্যাহত রাখে। গণতন্ত্র-পন্থীদের এই আন্দোলনে নিরাপত্তাবাহিনী কর্তৃক বহু মানুষ হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

শনিবার এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ইথিওপিয়া, চাঁদ ও দক্ষিণ সুদানের নেতারাসহ আফ্রিকান ইউনিয়ন, মুসলিম দেশগুলোর সংস্থা-ওআইসি, ইউরোপিয় ইউনিয়ন, কুয়েত, সৌদিআরব, বাহরাইন, তুরস্ক ও জিবুতির প্রতিনিধিরা উপস্থিতি ছিলেন। সুদানের র‌্যাপিড সাপোর্ট ফোর্স (আরএসএফ) এর কমান্ডার হেমেথি এবং গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারীদের জোট ‘অ্যালায়েন্স অব ফ্রিডম এন্ড চেঞ্জ’ (এএফসি) এর প্রতিনিধি আহমেদ আল-রাবির মধ্যে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

চুক্তির আওতায় নতুন ছয়জন বে-সামরিক এবং পাঁচজন জেনারেলের নেতৃত্বে গঠিত একটি সার্বভৌম পরিষদ নির্বাচন পর্যন্ত সুদানকে পরিচালনা করবে। দুইপক্ষই তিন বছরের অন্তবর্তীকালীন সরকারের মেয়াদের বিষয়ে একমত হয়েছেন। ১ সেপ্টেম্বর থেকে নতুন অন্তবর্তীকালীন সরকার দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। এই সরকারের প্রথম লক্ষ্য বিদ্রোহী গোষ্ঠিগুলোর সঙ্গে আলোচনা করে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা। দেশটিতে অন্তত তিনটি সশস্ত্র বিদ্রোহী গ্রুপ রয়েছে। বিবিসি জানায়, দেশটিতে সেনাবাহিনীই একমাত্র সুসংগঠিত ফোর্স নয়। দেশটির প্যারামিলিটারি অর্গানাইজেশন ও বিভিন্ন ইসলামিক গোষ্ঠি ভিন্ন ভিন্নভাবে প্রভাব বিস্তার করছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান

 

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]