• প্রচ্ছদ » আমাদের বিশ্ব » কারাগারে বই পড়ে সময় কাটছে কাশ্মীরের সাবেক  দুই মুখ্যমন্ত্রী ওমর ও মেহবুবা মুফতির


কারাগারে বই পড়ে সময় কাটছে কাশ্মীরের সাবেক  দুই মুখ্যমন্ত্রী ওমর ও মেহবুবা মুফতির

আমাদের নতুন সময় : 19/08/2019

লিহান লিমা : ৫ আগস্ট কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের আগের দিন ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যের দুই সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতিকে গ্রেপ্তার করে। এখন নামাজ, বই পড়া, জিম করা বা সিনেমা দেখেই বেশিরভাগ সময় পার করছেন এ দুই নেতা। টাইমস নাউ, টাইমস অব ইন্ডিয়া, ইন্ডিয়া টুডে।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর খবরে জানা গিয়েছে, কাশ্মীরের শ্রীনগরের গুপকার রোডের সরকারী গেস্ট হাউস হরি নিবাস প্যালেসে বন্দি ন্যাশনাল কনফারেন্সের ভাইস-প্রেসিডেন্ট ওমর আবদুল্লাহ। পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির (পিডিপি) প্রধান মেহবুবা মুফতি জম্মু-কাশ্মীর পর্যটন উন্নয়ন করপোরেশনের মালিকানাধীন ‘চাশমে শাহী’ গেস্টহাউজে বন্দি আছেন। দুই নেতাকে প্রথমে হরি নিবাস প্রাসাদে রাখা হয়। পরে দু’জনের ঝগড়া বেঁধে যাওয়ায় দুই-এক দিনের মাথায় তাদের আলাদা করে রাখা হয়।

স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, গ্রেপ্তারের পরেই ভিডিও গেমের অনুরোধ করেছিলেন ওমর আবদুল্লাহ। তাকে হলিউডের ছবির ডিভিডিও দেয়া হয়েছে। অতিথিশালার বাগানে হাঁটা ও জিম করার অনুমতি রয়েছে তার। সূত্র বলেছে, তাকে কখনো কখনো নোটবুকে লিখতে দেখা গিয়েছে। অন্যদিকে বন্দিদশায় মেহবুবার প্রিয় বন্ধু হয়ে উঠেছে বিভিন্ন রকমের বই। পাশাপাশি প্রার্থনা করছেন তিনি। তাকে মোঘল আমলের বাগানে হাঁটারও অনুমতি দেয়া হয়েছে।

সাবেক এ মুখ্যমন্ত্রীর মেয়ে ইলতিজা জাভেদ মুফতিকেও নিজ বাড়িতে গৃহবন্দি করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কাছে লেখা চিঠিতে তিনি বলেন, তাকে কারো সঙ্গে কথা বলতে দেয়া হচ্ছে না। তার অভিযোগ, কাশ্মীরিদের জন্তু-জানোয়ারের মতো বন্দি করে রাখা হয়েছে। একইভাবে, এনসি প্রধান ফারুক আব্দুল্লাহকেও বাড়ির বাইরে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া, এনসি, পিডিপি ও পিপলস কনফারেন্সের শতাধিক নেতাকে আটক করে সেন্টোর লেক ভিউ হোটেলের বিভিন্ন কক্ষে রাখা হয়েছে। ৩৭০ অনুচ্ছেদ বতিলের পর থেকে এ পর্যন্ত জম্মু-কাশ্মীরের অন্তত সাতশ’ মূলধারার রাজনীতিবিদ, স্বাধীনতাকামী ও সহযোগীকে আটক করা হয়েছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]