• প্রচ্ছদ » » ডেঙ্গু নামের মহামারীর কালে সারাজীবন গালি খাওয়া ডাক্তারেরা যে অনবদ্য ভ‚মিকাটা রাখলেন, তা নিয়ে একটা মুভি হোক


ডেঙ্গু নামের মহামারীর কালে সারাজীবন গালি খাওয়া ডাক্তারেরা যে অনবদ্য ভ‚মিকাটা রাখলেন, তা নিয়ে একটা মুভি হোক

আমাদের নতুন সময় : 19/08/2019

সওগাত আলী সাগর

টরন্টোর ‘সুপার হিরোদের’ নিয়ে একটি সিনেমা বানিয়েছেন মন্ট্রিয়লের চলচ্চিত্র ও বিজ্ঞাপনচিত্র নির্মাতা গ্যাভিন সিল । প্রচলিত অর্থে সিনেমা বলতে যা বোঝায় এটি তা নয়। এটি একটি মোটিভেশনাল কমার্শিয়াল মুভি। টরন্টোর ‘সুপার হিরো’ কারা? গল্প উপন্যাসে কিংবা আমরা সাধারণভাবে ‘হিরো’ বলতে যা বুঝে থাকি কিংবা আমাদের চোখের সামনে যে চেহারাটা ভেসে ওঠে, এই ‘সুপারহিরো’রা সেরকম কেউ নন। এই ‘সুপার হিরোরা’ শহরের সাধারণ মানুষ, যারা শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখেন, যারা নাগরিকদের অসুস্থতায়, তাদের নানা সমস্যায় সারাক্ষণ পাশে থাকে। আপনি হয় তো বলবেন… এরা তো বেতন পায়, চাকরি করে… তাই সেবা দেয়। আপনি সেটা বলতেই পারেন, কিন্তু এই শহর, শহর টরন্টো তাদেরই ‘হিরো’ ভাবে, ভাবে ‘সুপার হিরো’। এসব জরুরি সেবার কর্মীদের নিয়েই ‘ঐবৎব ঋড়ৎণড়ঁ’ নামের মুভিটি। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত অভিনেতা রিয়াজ মাহমুদও এই মুভিটিতে অভিনয় করেছেন। এর আগে মূলধারার মঞ্চে অভিনয়ের পর এটি তার আরেক উত্তরণ।
টরন্টোর ‘সুপার হিরোদের’ নিয়ে এই মুভিটির কথা শুনতে শুনতে ঢাকার কথা মনে পড়ে গেলো। ‘আচ্ছা এই মুহূর্তে ঢাকার কোনো নির্মাতা যদি ‘ঢাকার সুপার হিরো’ ধরনের কোনো সিনেমা বানান, কিংবা ডকু ফিল্ম, তাহলে কাদের নিয়ে হবে সেই মুভিটি? ‘যদি’ বলি কেন? ‘ঢাকার সুপার হিরো’ নামে তো একটি মুভি, নিদেনপক্ষে ডকু মুভি হওয়াই উচিত। এই যে ডেঙ্গু নামের এক বিভীষিকা সারাদেশকে কাঁপিয়ে দিলো, প্রতিদিন হাজারে হাজারে মানুষ হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে, যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে, তাদের কি নিরলসভাবেই না সেবা দিয়ে যাচ্ছে দেশের ডাক্তাররা, দেশের স্বাস্থ্যকর্মীরা। ঈদের উৎসবেও তারা উৎসব করেনি, পরিবার-পরিজন থেকে নিজেদের বিচ্ছিন্ন রেখে হাসপাতালে সেবা দিয়ে গেছেন, এখনো দিয়ে যাচ্ছেন। এদের ‘হিরো’-‘সুপার হিরো’ না বললে, আর কাকে বলবো। জানি আমাদের দেশের ডাক্তারদের নিয়ে অনেক কথা হয়, অনেক সমালোচনা হয়। সেই ডাক্তারেরাই তো এখন বিপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে গেছেন। কেবল দায়িত্ব পালন হলে… এই ডাক্তারেরা এতোটা করতে পারতেন না। এরা যা করছেন.. তা দায়িত্ব পালনের চেয়েও বেশি কিছু। এটাকে স্বীকৃতি না দিলে নিজেকেই ছোট হতে হয়। ঢাকায় যারা ফিল্ম বানান, ডকু বানান, তারা বিষয়টা ভেবে দেখতে পারেন। ডেঙ্গু নামের মহামারীরকালে সারাজীবন গালি খাওয়া ডাক্তারেরা যে ভ‚মিকাটা রাখলেন… তা নিয়ে একটা মুভি হোক না। মানুষ জানুক… আমাদের সুপার হিরোদের গল্প। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]