সেলিম ভাইয়ের কেবলা বদলাইছে!

আমাদের নতুন সময় : 19/08/2019

মাসুদা ভাট্টি

সবচেয়ে কষ্টদায়ক পোস্ট, যেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি অপেক্ষায় ছিলো কবে বঙ্গবন্ধু মারা যাবেন আর প্রকাশ্যে বাকশালে যোগ দিয়েও গোপনে আলাদা করে পার্টির কর্মকাÐ বজায় রেখে কমিউনিস্ট পার্টিও তো আসলে ষড়যন্ত্রের অংশীদারই ছিলো বঙ্গবন্ধু হত্যাকাÐের, নয়? আর কে কে বিষয়টি জানতেন সেটা মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেননি, অন্যত্র বলেছেন কিনা জানি না, তবে জানাটা দরকার না হলে এই নিষিদ্ধ-গোপনীয়তা কমিউনিস্ট পার্টির মতো একটি নীতিবাগিশ রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ঠিক মানানসই নয়, তাই নয়? ২. এতো বছর পরে এসে এই তথ্য বেশ কিছু প্রশ্নের জন্ম দিচ্ছে যেমন এই বাইরে থাকায় কমরেড ফরহাদ বা মণি সিংহের সমর্থন ছিলো কিনা? পার্টির ভেতরের কোন্দলে একটি শাখা মূল নেতৃত্বের নেয়া সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধাচার করলে হবে না, দেখতে হবে পার্টির মূল নেতৃত্ব কী বলছেন বা করছেন, নয়?
নির্বাচিত মন্তব্য : মোজ্জাম্মেল হোসেন মঞ্জু- এই পোস্টে আমার নাম ট্যাগ দেখে বিস্মিত। আমি কোনোভাবেই এই বিতর্কের সঙ্গে নিজেকে যুক্ত করছি না। উপযুক্ত তথ্যানুসন্ধান, গবেষণা ও বিশ্লেষণ হলে প্রয়োজনবোধে আমি যা জানি বলবো বা মন্তব্য করবো। ফেসবুকের তারল্য ও তাৎক্ষণিকতা উপযুক্ত পরিসর নয়। ২.অমি রহমান পিয়াল- এইটা তিনি ঠিক কি প্রেক্ষিতে বললেন বুঝলাম না, মানে বাকশাল জুজুটা ইউজ করা তাকে ঠিক মানাইলো না। সিপিবি আর ন্যাপ মোজাফফর ১৯৭৩ সালের মাঝামাঝি সময় থেকে বাকশালের ট্রায়াল রান দিয়ে আসছে ভিন্ন নামে, ‘৭৫-এ এইটা একটি ভিশনে গেছে মাত্র। সুনির্দিষ্ট পেপার কাটিং আছে, পেপারে নিউজ আসছে আওয়ামী লীগ, সিপিবি আর ন্যাপ মুজাফফর গণতান্ত্রিক কি একটা জোট বানিয়ে দেশ চালানোর এজেন্ডা দিয়েছে। এখন সেলিম ভাইয়ের কেবলা বদলাইছে তিনি ভুংভাং যা খুশি বলতে পারেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]