সাধারণ নির্বাচনই ব্রেক্সিট বিপর্যয় ঠেকাতে পারে, বললেন জেরেমি করবিন

আমাদের নতুন সময় : 20/08/2019

 

NEWPORT, WALES – APRIL 05: Labour party leader Jeremy Corbyn arrives to congratulate Ruth Jones, the new MP for Newport West on April 05, 2019 in Newport, Wales. The Newport West by-election was triggered following the death of Labour’s Paul Flynn who held the seat since 1987 (Photo by Anthony Devlin/Anthony Devlin/Getty Images)

লিহান লিমা : চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিটের কারণে ব্রিটেন খাদ্য, ঔষধ ও জ্বালানি সংকটসহ বন্দরজট এবং আয়ারল্যান্ড সীমান্ত জটিলতার মুখে পড়বে, সরকারের এই গোপন নথি ফাঁসের পর ব্রিটেনের লেবার পার্টি নেতা জেরেমি করবিন বলেছেন, ব্রিটেন এখন ব্রেক্সিট সংকটের মুখে পড়েছে। এই সময় তিনি চুক্তি ছাড়া ব্রিটেনকে ইউরোপ থেকে বের হওয়া ঠেকাতে প্রয়োজনীয় সবকিছু করার প্রতিশ্রুতি দেন। তিনি বলেন, একমাত্র সাধারণ নির্বাচনই ব্রেক্সিট বিপর্যয় ঠেকাতে পারে। বিবিসি, পলিটিকস হোম, দ্য ওয়েস্ট অস্ট্রেলিয়ান।

ওই নথিতে ব্রিটেনের খাদ্য এবং ঔষধ সংকট সম্পর্কে সতর্ক করার পর ব্রিটেনের ছায়া অর্থমন্ত্রী জন ম্যাকডোনেল বলেন, চুক্তি বিহীন ব্রেক্সিট ঠেকাতে জেরেমি করবিন আগামী সপ্তাহে ব্রিটেনের রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে দেখা করবেন।

এদিকে এই নথি নিয়ে ব্রিটেনের ক্যাবিনেট মন্ত্রী মাইকেল গভ বলেছেন, এই সরকারী নথি পূর্ববতী প্রশাসনে তৈরি করা হয়েছিলো, বরিস জনসন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট নিয়ে প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। তবে তিনি স্বীকার করে নেন, চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট খারাপ পরিস্থিতি তৈরি করবে।

ব্রেক্সিট সংকটের কারণে ব্রিটেন ‘জাতীয় জরুরী অবস্থা’য় পড়তে যাওয়ায় দেশটির ১০০ জনেরও বেশি এমপি প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের কাছে পার্লামেন্টের জরুরি অধিবেশন ডাকার জন্য চিঠি লিখেছেন। হাউস অব কমন্সের এই সদস্যরা বলছেন, জনসন চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিটের নামে করদাতাদের কোটি কোটি ডলার অর্থ ব্যয়ের পাঁয়তারা করছেন।  ৩ সেপ্টেম্বরের আগে কমন্সের অধিবেশন না থাকলেও সরকারের অনুরোধে স্পিকার অধিবেশন ডাকতে পারবেন। এমপিরা বলছেন, ব্রিটেন অর্থনৈতিক জরুরি অবস্থার মধ্যে পড়তে যাচ্ছে। চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট হলে খাদ্য ও ঔষধ সরবরাহ, চাকরি, বাজার অর্থনীতি, সরকারী সেবাখাত, বিশ্ববিদ্যালয়সহ দীর্ঘ-মেয়াদি অর্থনৈতিক অবস্থার ওপর প্রভাব পড়বে। আগস্টেই পার্লামেন্টের অধিবেশন ডাকতে হবে এবং এটি ৩১ অক্টোবর (ইইউ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময়সীমা) পর্যন্ত চলবে।

চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট নিয়ে ওই প্রতিবেদন ফাঁস হওয়ার আগে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছিলেন, তিনি নতুন ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে কথা বলবেন। চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট নিয়ে কাজ করা জনসনের ক্যাবিনেট সদস্যরা বলছেন, লেবার ও অন্যন্য বিরোধীরা ইইউ’র সঙ্গে আলোচনাকে খর্ব করছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]