দুর্নীতি হলে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

আমাদের নতুন সময় : 21/08/2019

মো. আখতারুজ্জামান : জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে এ নির্দেশনা দেন তিনি। মেঘনা নদীর ভাঙ্গন থেকে ভোলা জেলার চরফ্যাশন পৌর শহর সংরক্ষণ প্রকল্পের সংশোধনী প্রস্তাব অনুমোদন দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানান পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।
এম এ মান্নান বলেন, সভায় চরফ্যাশন পৌর শহর সংরক্ষণ প্রকল্পের সংশোধনী প্রস্তাব উপস্থাপন করা হলে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, এর আগে এ ধরনের একটি প্রকল্পে ইঞ্চিনিয়ারের ভুলের কারণে অনেক টাকা গচ্ছা দিতে হয়েছে। আবার ওই ইঞ্জিনিয়ার দেখি এ প্রকল্পের সঙ্গেও যুক্ত রয়েছেন। তাকে শাস্তি না দিয়ে অনেকটা প্রমোশন দেয়া হলো। এটা কেন করা হলো? প্রধানমন্ত্রীর এমন প্রশ্নের সঠিক কোন উত্তর দিতে পারেননি পানিসম্পদ মন্ত্রী এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব। পরে প্রধানমন্ত্রী ওই প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে শাস্তি নিশ্চিত করতে বলেছেন। এ পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রী ও সচিব বলেন, একনেক থেকে ফিরে গিয়েই তারা ওই ইঞ্জিনিয়ারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইনী ও বিধিবিধানগত ব্যবস্থা শুরু করবেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, দুর্নীতি বলতে যেটি বলা হয়েছে সেটি হচ্ছে ভুল অ্যাসেসমেন্টের কারণে ওই সময় সরকারের অনেক টাকা জলে গিয়েছিলো। সবজি রপ্তানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দুটি কার্গো বিমান কেনার বিষয়ে চিন্তা করতে বলেছেন বাংলাদেশ বিমানকে।
পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, এখন দেশের কৃষিপণ্য রপ্তানি অনেক বেড়েছে। যা অন্যেও বিমান ভাড়া নিয়ে বিদেশে পাঠাতে হচ্ছে। ফলে বিমান ভাড়া দিতে গিয়ে অনেক টাকা চলে যাচ্ছে। আমরা যদি বিমানের দুটি কার্গো বিমান কিনি তাহলে অনেক কম খরচেই রপ্তানি করতে পারবো। বিষয়টি ভেবে দেখা দরকার। এছাড়া পর্যায়ক্রমে সারাদেশের সব বিদ্যুৎ লাইন মাটির নিচ দিয়ে নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, সব লাইন মাটির নিচে নিতে হবে। নতুন করে স্লুইস গেট নির্মাণ না করারও নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। কেননা এসব গেট মরিচা পড়ে কয়েক দিনের মধ্যে নষ্ট হয়ে যায়। আর কাজ করে না। তাই একেবারেই অপরিহার্য না করে এসব গেট নির্মাণ করা যাবে না। হাওর অঞ্চলে সড়ক নির্মাণ সংক্রান্ত একটি প্রকল্প অনুমোদন দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, প্রকৃতির সঙ্গে সম্মান রেখে কাজ করতে হবে। প্রকৃতিকে বাধা দিয়ে কিছু করা যাবে না। তাই এসব সড়কে পর্যাপ্ত পানি প্রবাহের জন্য প্রচুর ব্রিজ বা কালভার্ট রাখতে হবে। তাছাড়া যেখানে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে করা যায় সেখানে সেটিই করতে হবে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অর্থনীতি বিভাগের সদস্য ও সিনিয়র সচিব ড. শামসুল আলম, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সদস্য সৌরেন্দ্র নাথ চক্রবর্তী, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক কৃষ্ণা গায়েন, পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মো. নূরুল আমিন, ভৌত ও অবকাঠামো বিভাগের সদস্য শামীমা নার্গিস প্রমুখ। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]