কৃষি যন্ত্রের দাম নয়, মানের দিকে গুরুত্ব দিতে হবে, বললেন কৃষিমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 22/08/2019

মতিনুজ্জামান মিটু : মাঠ পর্যায়ের কৃষি কর্মকর্তাদেরকে  দ্রুততার সঙ্গে কোন এলাকায় কোন যন্ত্রের কত চাহিদা তা জানাতে হবে। মাঠ পর্যায়ের প্রকৃত চিত্র মূল্যায়নের কাজ ও এলাকা চিহ্নিত করতে হবে। আমাদের জমির আকার ও মাটির ভিন্নতা রয়েছে। আমাদের মাটি ও জমির উপযোগি কৃষিযন্ত্র কৃষকের কাছে পৌছে দিতে হবে। গতকাল কৃষি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ‘সমন্বিত ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে কৃষি যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্প’ বিষয়ক সভায় সভাপতির বক্ত্যব্যে কৃষিমন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক এসব কথা বলেন।  মন্ত্রী বলেন, চাহিদার ভিত্তিতে কৃষিযন্ত্র সরবরাহ করতে হবে। ভালো টেকসই মেশিন এর দাম বেশি হলে সেটাই গ্রহণ করা হবে। কোম্পানির সঙ্গে কথা বলে কৃষকদের জন্য সহজ কিস্তি সুবিধা দেয়া যায় কিনা তাও দেখতে হবে। কাজটা কঠিন তবে সততার সঙ্গে কাজ করলে সম্ভব। যন্ত্র মেরামতকারী ও  ব্যবহারকারীদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

সভায় কৃষি সচিব মো. নাসিরুজ্জামান বলেন, কৃষককে কিভাবে লাভবান করা যায় তা মাথায় রেখে কাজ করতে হবে। গুনগতমান ও যন্ত্রের আকার একটা বড় ব্যাপার- সেটা মনে রাখতে হবে। যন্ত্রের মেরামত ও খুচরা যন্ত্রাংশের নিশ্চয়তা এবং সহজ লভ্য করতে হবে বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানকে।

এসময় মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (সম্প্রসারণ অনুবিভাগ) সনৎ কুমার সাহা,  ড. মো. আব্দুর রউফ (পিপিসি অনুবিভাগ), বিএডিসি’র চেয়ারম্যান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরেরর মহাপরিচালক, ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট ও বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এর মহাপরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট  কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সভায় প্রকল্প বিষয় উপস্থাপন করেন কৃষি প্রকৌশলী শেখ মো. নাজিম উদ্দিন। সম্পাদনা : ওমর ফারুক

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]