পুড়ছে অ্যামাজন, গত এক বছরে ৭২ হাজারবার আগুন লাগার রেকর্ড

আমাদের নতুন সময় : 22/08/2019

লিহান লিমা : গত কয়েক সপ্তাহ ধরে রেকর্ড সংখ্যক আগুনে পুড়ছে বিশ্বের বৃহত্তম রেইন ফরেস্ট আমাজন।  ব্রাজিলের স্পেস রিসার্চ সেন্টার (আইএনপিএ) বলেছে, শুধুমাত্র এই বছরেই আমাজনে ৭২ হাজার ৮৪৩টি আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। যা ২০১৮ সালের চেয়ে ৮৪ গুণ বেশি।  শুধুমাত্র বৃহস্পতিবার থেকেই ৯ হাজার ৫০০টি আগুনের ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছে। বিবিসি, এক্সপ্রেস, নিউইয়র্ক পোস্ট।

আবহাওয়াবিদ এরিক হোলথাউস টুইটে বলেন, ‘ব্রাজিলের অর্ধেক আবৃত করে রাখা আমাজন পুড়ছে। আমরা এখন জাতীয় জরুরি অবস্থায় রয়েছি।’ নাসার আকুয়া স্যাটেলাইটে ধরা পড়েছে, ১১ আগস্ট থেকে ১৩ আগস্ট পর্যন্ত ব্রাজিলের রোডোনিয়া, আমাজোনাস ও মাতো গ্রোসো রেকর্ড পরিমাণ আগুনে পুড়ছে। আমাজনের আগুনের ধোঁয়ার কারণে সোমবার ব্রাজিলের সাও পাওলো ব্ল্যাকআউটের কবলে পড়ে। স্যাটেলাইট ছবিতে দেখা গেছে, ব্রাজিলের উত্তরাঞ্চলের শহর রেরামিয়া কালো ধোঁয়ায় ঢেকে গেছে। এর পাশ্ববর্তী শহর আমাজোনাস এর রাজধানী মানোস আগুনের কারণে শুক্রবার থেকে জরুরি পরিবেশ সতর্কতা জারি করেছে। নাসা বলছে, কৃষকরা ফসলের জন্য জমি পরিষ্কার করার সময় অর্থাৎ শুষ্ক মৌসুমের শুরুতে জুলাই থেকে আগস্ট পর্যন্ত আমাজনে সবচেয়ে বেশি আগুন লাগার ঘটনা ঘটে।

নাসা তাদের স্যাটেলাইটে আমাজনে আগুনের ফলে সৃষ্ট ধোঁয়ার ছবি প্রকাশ করেছে। এতে দেখা গিয়েছে আগুনের কারণে বিশ্বের বৃহত্তম অরণ্য আমাজনে সিও২ এর মাত্রা আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে। এই বন ৩০ লাখেরও বেশি উদ্ভিদ ও প্রাণী প্রজাতি এবং ১০ লাখের বেশি আদিবাসীর আবাসস্থল।

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসানারো বন উজাড়ের তথ্য সংক্রান্ত কারণে আইএনপিই এর প্রধানকে বহিস্কার করার সপ্তাহখানেক পরই এই খবর আসলো। তার এই বহিস্কার সরকারের পরিবেশ নীতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। সংরক্ষণবাদীরা বলছেন, বোলসানারো কৃষক ও কাঠুরেদের বন উজাড়ে মদদ দিচ্ছেন। অন্যদিকে আইএনপিই-কে বন উজাড়ের তথ্য চাপা রাখতে প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করছেন। সম্পাদনা : ইকবাল খান

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]