আমাজনের আগুন নিয়ন্ত্রণে অর্থ দিয়ে ল্যাটিন আমেরিকার সার্বভৌমত্ব কিনতে চায় ফ্রান্স ও জার্মানি, বললেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট

আমাদের নতুন সময় : 30/08/2019

লিহান লিমা : পৃথিবীর সবচেয়ে বড় রেইনফরেস্ট আমাজনের আগুন নিয়ন্ত্রণে ৬০ দিনের জন্য দেশে কোন ধরনের আগুন জ্বালানো নিষিদ্ধ করলো ব্রাজিল। বৃহস্পতিবার এক প্রেসিডেন্সিয়াল ডিক্রিতে জেইর বোলসানারো এই নিষেধাজ্ঞা দেন। এর আগে অ্যামাজনের আগুন নিয়ে দেশে এবং বিদেশে কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েন বোলসানারো। বৈশ্বিক ব্র্যান্ডগুলো পরিবেশ নীতিকে কেন্দ্র করে ব্রাজিলের কাছ থেকে চামড়া ক্রয় বাতিল করার হুমকি দেয়। স্কাই নিউজ, এনডিটিভি, বিবিসি
তবে তিনটি শর্তে আগুন জ্বালানোর অনুমতি দেয়া হবে। প্রথমত, পরিবেশ কর্তৃপক্ষ উদ্ভিদের জন্য হুমকিস্বরুপ নয় বিবেচনা করে আগুন জ্বালানোর অনুমতি দিলে, দ্বিতীয়ত, দাবানলের বিরুদ্ধে পাল্টা সুরক্ষাজনিত পদক্ষেপ হিসেবে এবং আদিবাসীরা কৃষিকাজের জন্য ঐতিহ্যগতভাবে এটি ব্যবহার করে থাকলে।
এর আগে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে বিতর্ক জড়িয়ে জি-৭ দেশগুলোর দেয়া ২ কোটি ২০ লাখ ডলার সহায়তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন বোলসানারো। বুধবার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘ফ্রান্স ও জার্মানি অ্যামাজনে আগুন নিয়ন্ত্রণের আর্থিক সাহায্য দিয়ে ল্যাটিন আমেরিকার দেশগুলোর সার্বভৌমত্ব কিনে নিতে চাইছে। বিষয়টি এমন যেন ২ কোটি ডলার আমাদের বিক্রয়মূল্য। ২ কোটি বা ২ লাখ কোটি ডলার ব্রাজিলের মূল্য নয়, টাকার পরিমাণ যাই হোক আমাদের কাছে বিষয়টি এক-ই।’ এদিন চিলির প্রেসিডেন্টের সঙ্গে এক বৈঠকে আগুন নিয়ন্ত্রণে প্রস্তাবকৃত চারটি ফায়ার প্লেন গ্রহণ করেন। এছাড়া পেরু ও কলম্বিয়ার সহায়তা প্রস্তাবও গ্রহণ করেন বোলাসানারো। ব্রাজিল সরকার বলেছে, তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে সাতটি শহরে ৪৪ হাজার সেনা মোতায়েন করেছে। আগামী সপ্তাহে অ্যামাজনের এই সংকট নিয়ে আলোচনায় বসবে দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলো।
পৃথিবীর অক্সিজেনের অন্যতম উৎস অ্যামাজনের আগুন বৈশ্বিক উষ্ণতার জন্য একটি বড় শঙ্কা। আগস্টের মাঝামাঝি সময়ে ব্রাজিলের স্পেস এজেন্সি জানায়, ‘এই বছর ১ জানুয়ারি থেকে ২৭ আগস্ট পর্যন্ত ৮৩ হাজারেরও বেশি অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে। যা ২০১৮ সালের চাইতে ৭৭ শতাংশ বেশি। নাসা সতর্ক করে বলেছে, ২০১৯ সালে অ্যামাজনের আগুনের এই পরিমাণ ২০১২ সালের পর থেকে সর্বাধিক। বুধবার ব্রাজিলের পরিবেশবিদরা সতর্ক করে বলেন, ‘এই আগুন আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করবে।’ সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]