আগামী সপ্তাহে নতুন সাধারণ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবেন বরিস, মেইলের জরিপ

আমাদের নতুন সময় : 02/09/2019


আসিফুজ্জামান পৃথিল : বরিস জনসনকে সরিয়ে দিতে পরিকল্পনা করছেন তার টোরি দলেরই এমপিরা। বেশ কিছু মন্ত্রীও যুক্ত আছেন সেই পরিকল্পনায়। ধারণা করা হচ্ছে, এই সপ্তাহেই বরিসকে সরাতে একটি অনাস্থা প্রস্তাবও উঠতে পারে। এমপিদের মূল লক্ষ্য এখন চুক্তিহীন ব্রেক্সিট ঠেকানো এবং পার্লামেন্টকে সচল করে তোলা। তবে মেইল অন সানডের এক জরিপ বলছে সম্পূর্ণ ভিন্ন কথা। যদি বরিসের পতনও ঘটে তাহলে একটি সাধারণ নির্বাচন আয়োজন করতে হবে। নতুন করে নির্বাচন হলেও বরিস জনসন ২৮টি অতিরিক্ত আসন নিয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবেন। ডেইলি মেইল।
প্রভাবশালী টোরি নেতা ও বরিস সমর্থক জ্যাকব রেস মগ অভিযোগ করেছেন, বোকা এবং অদূরদর্শী এমপিরা একটি অপরিণতমনস্ক পরিকল্পনা করছেন। রেস মগ সেই প্রতিনিধিদের একজন যারা বরিসের পার্লামেন্ট স্থগিত করার পরিকল্পনা নিয়ে রানির কাছে গিয়েছিলেন। পার্লামেন্ট স্থগিত করার পরেই খোদ ক্ষমতাসীন টোরি দলের এমপিরাই বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে সরিয়ে দিতে উঠে পরে লেগেছেন। তবে জরিপ বলছে, যদি নাইজেল ফারাজের ব্রেক্সিট পার্টি সাধারণ নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ায় তবে বরিস জনসন ৮৪ আসনের সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফের প্রধানমন্ত্রী হবেস। ফিলিপ হ্যামন্ডসহ বরিসকে সরানোর মূল পরিকল্পনাকারীরা এই সপ্তাহেই কমন্সের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিতে চান। তারা এমন একটি আইন পাশ করিয়ে নিতে চান, যার ফলে চুক্তিহীন ব্রেক্সিট নিশ্চিতভাবে আটকে যাবে।
তবে কমন্স নেতা জ্যাকব রেস মগ একটি কলামে লিখেছেন, বিরোধীরা বড় বেশি তাড়াহুরো করছে। এভাবে ক্ষমতা দখলের চেষ্টা করা হবে অরাজনৈতিক এবং অসাংবিধানিক। তাদের সামনে আরো পথ খোলা আছে যা তারা দেখতে পাচ্ছেন না। তাদের কোনোভাবেই অনাস্থা ভোটে যাওয়া ঠিক হবে না, কারণ জেরেমি করবিনের জনপ্রিয়তা নাই বললেই চলে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]