পারিশ্রমিকের চেয়ে ২১ গুণ বেশি বিজ্ঞাপনে আয় ভারতীয় ক্রিকেটারদের

আমাদের নতুন সময় : 04/09/2019


শিউলী আক্তার : ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের চুক্তি অনুযায়ী ক্রিকেটাররা বছরে যত বেতন পান তার থেকে ২১ গুণ বেশি বিজ্ঞাপন করে কিংবা শুভেচ্ছাদূত হিসেবে আয় করেন খেলোয়াড়ররা।
ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি, সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি, রোহিত শর্মা, হার্দিক পান্ডিয়া, শিখর ধাওয়ানরা নানা কোম্পানির বিজ্ঞাপন করে এবং শুভেচ্ছাদূত হিসেবে কাজ করে আয় করেন বেতনের চেয়ে প্রায় ২০ গুণ বেশি অর্থ।
কোহলি বোর্ড থেকে বছরে বেতন পান ৭ কোটি রুপি। সেখানে নানা ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপন করে ও শুভেচ্ছাদূত হিসেবে চুক্তিবদ্ধ থেকে আয় করেন ১৪৬ কোটি রুপি, যা তার বেতনের চেয়ে প্রায় ২১ গুণ বেশি। ফোর্বসের সর্বোচ্চ উপার্জনকারী ক্রীড়াবিদদের মধ্যে একমাত্র ক্রিকেটার তিনিই। পুমা, এমআরএফ টায়ার, অডির মতো বিশ্বখ্যাত কোম্পানির অ্যাম্বাসেডর এই ব্যাটিং মায়েস্ত্রো। এ ছাড়া দেশীয় বিভিন্ন বিজ্ঞাপনী সংস্থার সঙ্গেও জড়িত তিনি।
অধিনায়কত্ব ছাড়ার পর বোর্ড থেকে ধোনির প্রাপ্ত পারিশ্রমিক ৫ কোটি রুপি। তিনি ব্র্যান্ড ভ্যালু থেকে আয় করেন প্রায় ১২০ কোটি রুপি, যা তার বেতনের প্রায় ২৪ গুণ বেশি। ২০১৪ সালে বিশ্বের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ফোর্বসের সর্বোচ্চ আয় করা ক্রীড়াবিদদের তালিকায় জায়গা পান ক্যাপ্টেন কুল। রিবক, পেপসিকো, স্পার্তানের মতো স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তিনি।
ব্র্যান্ড ভ্যালু দিয়ে বেতনের চেয়ে বেশি আয় করা পরের ভারতীয় ক্রিকেটার হার্দিক। বিসিসিআই থেকে তিনি পারিশ্রমিক পান তিন কোটি রুপি। তার ব্র্যান্ড মূল্য প্রায় ১৪ কোটি রুপি। শুধু বিজ্ঞাপনী কাজ করেই এ অর্থ রোজগার করেন পেস অলরাউন্ডার।
অবশ্য ততটা ব্র্যান্ড ভ্যালু নেই রোহিতের। তবু বেতনের চেয়ে তা থেকে বেশি আয় করেন তিনি। বোর্ড থেকে বেতন পান ৭ কোটি রুপি। বিজ্ঞাপন করে আয় করেন ৭ কোটি ২০ লাখ রুপি। অ্যাডিডাস, হাবলট, অ্যারিস্টোক্র্যাটের মতো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করেন হিটম্যান।
কম যান না রোহিতের ওপেনিং পার্টনার শিখর ধাওয়ান। বিসিসিআই থেকে ৫ কোটি বেতন পান তিনি। সেখানে বিজ্ঞাপন থেকে আয় করেন প্রায় ৫ কোটি ২০ লাখ রুপি। জিএস ক্যালটেক্স, বোট, অ্যালসিস স্পোর্টসের মতো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে দারুণ সম্পর্ক আছে ভারতীয় ক্রিকেটের ‘গাব্বার সিংয়ের’। সম্পাদনা : এল আর বাদল




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]