• প্রচ্ছদ » » আল-কায়েদা পাকিস্তান ও আফগানিস্তান ছেড়ে দৃষ্টি ফেলেছে ভারত-বাংলাদেশ-মিয়ানমারের দিকে


আল-কায়েদা পাকিস্তান ও আফগানিস্তান ছেড়ে দৃষ্টি ফেলেছে ভারত-বাংলাদেশ-মিয়ানমারের দিকে

আমাদের নতুন সময় : 09/09/2019


সুব্রত বিশ্বাস : আল-কায়েদা পাকিস্তান, আফগানিস্তান ছেড়ে দৃষ্টি ফেলেছে ভারত, বাংলাদেশ, মিয়ানমারের দিকে। আবার কোন রাজনৈতিক মেরুকরণ শুরু হয়েছে কে জানে। বাংলাদেশের আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি আর ভারতের কংগ্রেস বিজেপি তারা শাসনগতভাবে পুঁজিবাদী গণতন্ত্রের স্বার্থকেই বড় করে দেখছেন এবং সেভাবেই শাসন ব্যবস্থা চালিয়ে চলেছেন। এসব দেশে প্রাথমিক ক্যাপিটাল গেইনের কার্যক্রম চলছে দুর্নীতির মাধ্যমে। ভারতের রাষ্ট্রীয় সেবক সংঘ, আরএসএস, বাংলাদেশের জামায়াতসহ অসংখ্য ইসলামী চেতনার দলগুলো আর আল-কায়েদা একই ভাবনা ইসলামী প্রজাতন্ত্র কায়েমের স্বপ্ন দেখে তারা ধর্মের নামে ক্ষমতা পাওয়ার স্বপ্ন সাধনার রাজনীতি করেন। এই যে ধমান্ধ ভাবাদর্শ তা আজ প্রতিহত করা কঠিন হচ্ছে, তার কারণ জাতিগত শ্রেণিবৈষ্যম্যতা আর পুঁজিভত্ত শাসন ব্যবস্থা। একটা শ্রেণি বাংলাদেশে ধনী হয়ে উঠছে আর শত শত লক্ষাধিক মানুষ অর্থকষ্টে দিনাতিপাত করছে। তারাই এখন সমাজের নি¤œবর্গের মানুষ তাদেরই ধমান্ধরা ধর্মীয় চেতনার আড়ালে এক সন্ত্রাসী তৎপরতার নামে ধর্মযুদ্ধের বাতাসে অধার্মিক কর্মকা-ে লিপ্ত করছে এর জন্য আজ আমাদের পুঁজিবাদী রাষ্ট্র ব্যবস্থা দায়ী, যদি জাতিগত ভাবাদর্শে শাসন চলতো যদি ধমনিরপেক্ষ গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র কায়েমের ব্যবস্থা বা চেষ্টা চলতো তবে এসব গুছিয়ে উঠার সাহস করতো না। এসব কোনো বাম ধারণা নয়। কেন নৈরাজ্যবাদী বাড়ছে ভাবুন একবার। বৈষম্য থেকে এটা হচ্ছে। সুবিধাভোগিরা একরকম কথা বলছেন আর অন্যরা যারা সুবিধাবঞ্চিত তারা অন্য রকম কথা বলছেন। তবে এটাই সত্য সভ্য আচরণই ধর্ম। দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে হবে জনগণের ও রাজনীতিকদের। ধারণা বদলাতে হবে, স্বার্থবাদী চেতনা নাশ করতে হবে, সামগ্রিক প্রতিযোগিতার বাজারে বিশ্বাসী হতে হবে, লুটপাটের রাজনীতি ভুলে, ধমান্ধের রাজনীতি ভুলে কাজ করতে হবে এটাই এই সাবকন্টিনেন্টের বাস্তবতা। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]