• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » গোমূত্র থেকে ক্যান্সারের ওষুধ বানাচ্ছে সরকার, দাবি ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর


গোমূত্র থেকে ক্যান্সারের ওষুধ বানাচ্ছে সরকার, দাবি ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

আমাদের নতুন সময় : 09/09/2019


সাইফুর রহমান : গোমূত্র খেয়ে ক্যান্সার নিরাময় হয়েছে, কিছুদিন আগে এমন দাবি করে সবার হাসির পাত্র হয়েছেন ভোপালের বিজেপি এমপি প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর। আরএসএসের সঙ্গে বিজেপির চিরন্তন যোগসূত্র রয়েছে বলে অনেকে এনিয়ে কটাক্ষও করেছিলেন। এবার একই সুরে কথা বললেন ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী অশ্বিনী কুমার চৌবে। তিনি জানান, ক্যান্সারের ওষুধ তৈরিতে গোমূত্র ব্যবহার নিয়ে আয়ুর্বেদ মন্ত্রণালয় অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে কাজ করছে। ইন্ডিয়া টুডে,ন্যাশনাল হেরাল্ড ইন্ডিয়া
শনিবার তামিলনাডুর কোয়েম্বাটোরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এই অশ্বিনী দাবি করেন, বেশ কয়েকটি জটিল রোগের ওষুধ তৈরিতে গোমূত্র ব্যবহৃত হয়। এমনকি ক্যান্সারের মতো নিরাময়ের অযোগ্য রোগের চিকিৎসার জন্যও এটি ব্যবহৃত হয়। তবে এক্ষেত্রে দেশি গরুর মূত্রই ব্যবহার করা হয়। আয়ুর্বেদ মন্ত্রণালয় এনিয়ে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে কাজ করছে বলেও জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার গরু সংরক্ষন ও রক্ষনাবেক্ষণেও কাজ করছে। ডায়াবেটিস এবং ক্যান্সারের মতো রোগগুলি গোটা পৃথিবীর জন্যই চ্যালেঞ্জ। এগুলো পুরোপুরি নির্মূলের উপায় এখনো আমাদের জানা না থাকলেও এসবকে আমরা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারি। এক্ষেত্রে টেকসই উন্নয়ন লক্ষমাত্রা অর্জনের জন্য ভারত সরকার ২০৩০ সাল পর্যন্ত সময়সীমা নির্ধারণ করেছেন বলেও জানান তিনি।
মন্ত্রী আরো জানান,স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য আয়ুর্বেদ ভারতকে ‘প্রধানমন্ত্রী জনস্বাস্থ্য যোজনা (জেএআই)’-এর অধীনে অন্তর্ভূক্ত করার প্রস্তাব বিবেচনা করছে। আয়ুর্বেদ, যোগব্যায়াম ও প্রাকৃতিক চিকিৎসা,ইউনানি,সিদ্ধা ও হোমিও প্যাথির বিকল্প ওষুধের ক্ষেত্রে উন্নয়ন,শিক্ষা ও গবেষণার উপরও জোর দেয়া হয়েছে।
শুধু ভোপালের সাংসদ বা কেন্দ্রীয় মন্ত্রীই নন, গরু নিয়ে গতমাসে উত্তরাখন্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াতও এমন দাবি করেছিলেন। দেরাদুনের একটি অনুষ্ঠানে তিনি বলেছিলেন, গরুই একমাত্র পশু যে অক্সিজেন ছাড়ে। গরুর কাছাকাছি থাকলে যক্ষ্মা নিরাময় হয় বলেও দাবি করেছিলেন তিনি। সম্পাদনা : আসিফুজ্জামান পৃথিল




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]