• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » ডা. তাজুল ইসলাম বললেন বয়োসন্ধিকালে হিরো হওয়ার জন্য গ্যাং কালচারে জড়াচ্ছে কিশোররা


ডা. তাজুল ইসলাম বললেন বয়োসন্ধিকালে হিরো হওয়ার জন্য গ্যাং কালচারে জড়াচ্ছে কিশোররা

আমাদের নতুন সময় : 09/09/2019


জুয়েল খান : যারা ছোট থেকে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না, উচ্ছৃঙ্খল জীবনযাপন করে, তারাই একটা সময় মাদকাসক্ত হচ্ছে। আর মাদকের টাকা যোগাতে কিশোর বয়সে অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে বলে মনে করেন মনোবিজ্ঞানী ডা. তাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, কিশোর বয়সে আবেগের বসে কোনো চিন্তাভাবনা না করেই যা খুশি তাই করার একটা প্রবণতা দেখা দেয়। বিশেষ করে এরা মানুষের প্রতি খুব নিষ্ঠুর আচরণ করে। মুরগি জবাই করলে মানুষের মধ্যে যেমন অনুভূতি হয় ঠিক তেমন অনুভূতি কাজ করে কিশোর বয়সে মানুষ জবাই করলে। অপরাধপ্রবণ এসব কিশোর ছোট বয়সে স্কুল ফাঁকি দেয়, পড়া বাদ দিয়ে মেয়েদের বিরক্ত করে। এর সঙ্গে যুক্ত হয় পরিবারিক বন্ধন দুর্বলতা। সব মিলিয়ে প্রতিকূল পাশিপার্শি^ক পরিবেশের কারণে কিশোর বয়সে অপরাধে জড়ায় এবং গ্যাং কালচার তৈরি হয়। পাশাপাশি স্থানীয় রাজনীতির কারণে এই বয়সের ছেলেদের ব্যবহার করা হয়। এই বয়সের কিশোররা কোনো চিন্তাভাবনা না করেই বড় ধরনের অপরাধ করে অ্যাডভেঞ্চারের কারণে। এরা পুলিশের হাতে ধরা পড়লেও সাজা কম হয় এবং স্থানীয় নেতারা আইনের ফাঁকফোকর দিয়ে ছাড়িয়ে আনে। ছাড়া পেয়ে আরও বড় পরিসরে অপরাধ করতে থাকে এবং একটা সময় সমাজের জন্য বড় ধরনের হুমকি হয়ে দাঁড়ায়। আগে অপরাধীরা মানুষকে দেখলে ভয় করতো এখন সাধারণ মানুষ অপরাধীদের দেখলে ভয় পায়।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]