নতুন ওষুধ এসেছে সামান্য জনবল সংকটে দুই সিটি করপোরেশন

আমাদের নতুন সময় : 09/09/2019


সুজিৎ নন্দী : বর্তমানে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) চীন এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ভারত থেকে পরীক্ষামূলক সামান্য ওষুধ এনেছে। নতুন আনা ওষুধ দেয়া নিয়ে জনবল সংকট দেখা দেয়। মাত্র এক মাসের জন্য আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে পরিচ্ছন্ন অভিযান চলছে। পাশাপাশি আগামী মাসের মধ্যে মশক নিধন ওষুধ শেষ হয়ে যাবে। এ মাসের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে পুনরায় নতুন ওষুধ আনা এবং অতিরিক্ত জনবল নিয়োগের মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন না পেলে বড় ধরনের সংকট দেখা দেবে। সূত্র জানায়, মাত্র ৪৮ শতাংশ জনবল নিয়ে সংস্থা দু’টি নাগরিক সেবা দিয়ে আসছে। এর ফলে নাগরিক সেবার মানও কমেছে। পাশাপাশি ডেঙ্গুসহ প্রাকৃতিক বিভিন্ন দুর্যোগ ও পরিচ্ছন্নতা কর্যক্রমে হিমশিম খেতে হচ্ছে সংস্থা দুটিকে। এ অবস্থায় নাগরিকসেবা অব্যাহত রাখতে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, সরকারের অন্যান্য জরুরি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানসহ স্বেচ্ছাসেবীদের ওপর নির্ভর করতে হচ্ছে এই দুই সিটিকে।
ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, জনগণকে যথাযথ সার্ভিস দেয়ার জন্য অবশ্যই জনবল বাড়াতে হবে। আমাদের জনবল খুবই কম। সে কারণে জরুরি সার্ভিস দিতে আমরা হিমশিম খাচ্ছি। অন্যদের ওপর নির্ভরশীল হতে হচ্ছে। জনবল কাঠামো অনুমোদন পেলে নগরীতে এই সমস্যাগুলো দেখা দিতো না। তখন আরও ভালো সার্ভিস দেয়া সম্ভব হতো।
দুই সিটি করপোরেশনের একাধিক সূত্র জানায়, ঢাকা দক্ষিণে মশানিধন কাজে ৩৪৪ জন জনবল রয়েছে। এর মধ্যে স্প্রে-ম্যান রয়েছেন ১৮৩ জন, ক্রু ১৫১ জন ও সুপারভাইজার ১০ জন। অন্যদিকে, ঢাকা উত্তর সিটিতে এর সংখ্যা ৩১৭ জন। এর মধ্যে ১২০ জন স্প্রেম্যান ও ১৮৯ জন ক্রু-ম্যান। সুপারভাইজার রয়েছেন ৮ জন। মাত্র এক হাজার ৬৬১ জন জনবল নিয়ে এ বিশাল নগরীর মশানিধন কাজ পরিচালনা অসম্ভব বলে মনে করছে সিটি করপোরেশন। এ অবস্থায় ডেঙ্গু মোকাবিলায় ঢাকা দক্ষিণ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের কর্মীদের সমন্বয়ে কমিউনিটি অ্যাম্বাসেডর নিয়োগ করেছে। পাশাপাশি স্কাউট ও বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোর ( বিএনসিসি) সদস্যদের দ্বারস্থ হয়েছে।
ডিএসসিসি মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, এখন সিটি করপোরেশনের আয়তন বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। কিন্তু জনবল বাড়েনি। বরং কমছে। মাত্র ৪৮ শতাংশ জনবল নিয়ে এখন দ্বিগুণ সিটির সেবা দিয়ে যাচ্ছি। পরিচ্ছন্নতা ও মশানিধন কার্যক্রমসহ দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনায় হিমশিম খেতে হচ্ছে। আমাদের যে জনবল কাঠামো রয়েছে, সেটা দীর্ঘ ৮-৯ বছর ধরে মন্ত্রণালয়ে পড়ে আছে। এখনও অনুমোদন দেয়া হয়নি। আমি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ফোরামে বলেছি। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]