• প্রচ্ছদ » সাবলিড » পাকিস্তানের কারাগারে নয় জইশ সদরদপ্তরে রয়েছেন মাসুদ আজহার, নিচ্ছে হামলার প্রস্তুতি, দাবি ভারতের


পাকিস্তানের কারাগারে নয় জইশ সদরদপ্তরে রয়েছেন মাসুদ আজহার, নিচ্ছে হামলার প্রস্তুতি, দাবি ভারতের

আমাদের নতুন সময় : 10/09/2019


আসিফুজ্জামান পৃথিল : কয়েক সপ্তাহ আগে পাকিস্তান জানিয়েছিলো, তারা জইশ-ই-মোহাম্মদ প্রধান মাসুদ আজহারকে গ্রেফতার করে কারাগারে প্রেরণ করেছে। তবে ভারতীয় সরকারের এক সূত্র বলছে ভিন্ন কথা। তাদের দাবি মাসুদ আজহারকে জেলে রাখা হয়নি, বরং সে রয়েছে নিজ সংগঠনেরই সদরদপ্তরে। এনডিটিভি, জি নিউজ, ফাইনান্সিয়াল এক্সপ্রেস
দুজন গোয়েন্দা কর্মকর্তা ভারতীয় সরকার ও গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন মাসুদ আজহারকে আসলে কখনই কারাগারে রাখা হয়নি। সে রয়েছে পাঞ্জাবের বাওয়ালপুর শহরে অবস্থিত জইশ সদরদপ্তর মারকাজ-ই-সুবহানাল্লাহতে। এখানে তার সঙ্গে রয়েছে তার পরিবারও। ভারতের গোয়েন্দা সূত্রের অভিযোগ, মাসুদ আজহারের সহায়তায় পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই ভারতে আবারও পুলওয়ামা স্টাইলে হামলার পরিকল্পনা করছে। তবে এবারের হামলা হবে আরো সুসংগঠিত ও পরিকল্পিত। এজন্য একদল সন্ত্রাসীকে দেয়া হচ্ছে কমান্ডো স্টাইলের প্রশিক্ষণ। এজন্য বেঁছে নেয়া হয়েছে ভারতের জম্মু ও রাজস্থান সেক্টরকে। সিন্ধু এবং আজাদ কাশ্মীর সীমান্ত ব্যবহার করে এই কমান্ডো প্রশিক্ষিত জঙ্গীদের ভারতে পাঠানো হতে পারে।
ভারতীয় গোয়েন্দা সূত্রের বরাতে বলা হয়েছে ওয়াজিরিস্তান এলাকা থেকে ১০ হাজার জঙ্গীকে বাছাই করেছে আইএসআই। তাদেরকে এখন জইশ এর আদর্শিক দীক্ষা দেয়া হচ্ছে। স্থলপথের বাইরে এবার জলপথেও হামলা পরিচালনা করতে চায় জইশ। এ কারণে বেশ কিছু জঙ্গীকে পানির নিচের হামলার প্রশিক্ষণও দেয়া হচ্ছে। কিছুদিন আগে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ দাবি করে গুজরাটের কচ্ছ এলাকায় তারা দুটি পাকিস্তানি নৌকা পরিত্যক্ত অবস্থায় পেয়েছে। এরপর এই এলাকার বন্দরগুলিতে সতর্কতা জারি করা হয়। খারতের গোয়েন্দা সূত্র আরো জানাচ্ছে, নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের রাওয়ালকোটের রাখ চক্রি সেক্টরে এ ধরণের হামলার জন্য প্রচুর গোলাবারুদ জমা করা হয়েছে। এসব গোলাবারুদের দায়িত্বে রয়েছে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ১০ বালুচ রেজিমেন্ট। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]