শেয়ারবাজারে আবারও পতন, বেড়েছে লেনদেন

আমাদের নতুন সময় : 10/09/2019

রমজান আলী : টানা ৬ কার্যদিবস পতনের পর শেষ ২ কার্যদিবস উত্থান হয়েছে শেয়ারবাজারে। তবে সেই উত্থান ধরে রাখতে পারেনি শেয়ারবাজার। সোমবার আবার পতনে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। এদিন উভয় শেয়ারবাজারের সব সূচক কমেছে। একই সঙ্গে কমেছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর। তবে টাকার পরিমাণে লেনদেন আগের দিন থেকে বেড়েছে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই ও সিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
জানা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫০০৯ পয়েন্টে। ডিএসইতে অপর দুই সূচকের মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১৬৯ ও ১৭৫৮ পয়েন্টে।
ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৫৩টি কোম্পানির মধ্যে ৭৪টি বা ২১ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে দাম কমেছে ২৩৭টি বা ৬৭ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪২টি বা ১২ শতাংশ কোম্পানির।
এদিন ডিএসইতে ৪০৭ কোটি ৩ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিন থেকে ৩৫ কোটি ৪২ লাখ টাকা বেশি। আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ৩৭১ কোটি ৬১ লাখ টাকা।
টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে ন্যাশনাল টিউবসের শেয়ার। এদিন কোম্পানির ২২ কোটি ০২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসা ইবনে সিনা ফার্মার ১৭ কোটি ২৫ লাখ টাকার এবং ১৬ কোটি ৬৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে উঠে আসে মুন্নু সিরামিক।
লেনদেনে এরপর রয়েছে- ইউনাইটেড পাওয়ার, স্টাইলক্রাফট, মুন্নু জুট স্টাফলার্স, ওয়াটা কেমিকেল, বিকন ফার্মা, আইটিসি ও গ্রামীণফোন।
অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৬৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ২২৫ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৫৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৫২টির, কমেছে ১৮৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টির দর। সিএসইতে ৬৯ কোটি ৪৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। সম্পাদনা : আবদুল অদুদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]