আজ বাউল সম্রাট শাহ আবদুল করিমের ১০ম মৃত্যুদিবস

আমাদের নতুন সময় : 12/09/2019


রেন্টিনা চাকমা : বাউল গানের কিংবদন্তি শিল্পী শাহ আবদুল করিম । ১৯১৬ সালে সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার উজানধল গ্রামে ১ মার্চ জন্ম নেন বাউল এই শিল্পী। আজ তাঁর ১০ম মৃত্যুদিবস ।
মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত লিখে গেছেন পাঁচ শতাধিক গান। তাতে দিয়েছেন সুরের মূর্ছনা। বাংলা একাডেমীর উদ্যোগে তার ১০টি গান ইংরেজিতে অনুবাদও হয়েছে। কিশোর বয?স থেকে গান লিখলেও এসব গান কেবল ভাটি অঞ্চলে জনপ্রিয? ছিল। মৃত্যুর বছরখানেক আগে বেশ কয়েকজন শিল্পী তাঁর গানগুলো নতুন করে গেয়েছেন। অর্জন করেছেন ব্যাপক জনপ্রিয?তা। বাউলসাধক শাহ আবদুল জীবনের একটি বড? অংশ লড?াই করেছেন দারিদ্রতার সঙ্গে। তাঁর সাহায্যার্থে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এগিয়ে এলেও তা তিনি কখনোই গ্রহণ করেননি।
২০০৬ সালে সাউন্ড মেশিন নামের একটি অডিও প্রকাশনা সংস্থা তার সম্মানে ‘জীবন্ত কিংবদন্তীঃ বাউল শাহ আবদুল করিম’ নামে একটি অ্যালবাম প্রকাশ করে। যেখানে বিভিন্ন শিল্পীরা তাঁর জনপ্রিয? ১২ টি গান গেয়েছেন । এই অ্যালবামের বিক্রি থেকে পাওয?া অর্থ বার্ধক্যজনিত রোগের চিকিৎসার জন্য তাঁকে দেয?া হয?। শাহ আবদুল করিমের জনপ্রিয? এবং উল্লেখযোগ্য কিছু গান হলো: বন্দে মায?া লাগাইছে, আগে কি সুন্দর দিন কাটাইতাম, গাড়ি চলে না, রঙ এর দুনিয?া তরে চায? না, সাহস বিনা হয?না কভু প্রেম, আমি বাংলা মায়ের ছেলে, কোন মেস্তরি নাও বানাইছে, মন মিলে মানুষ মিলে, সময? মিলে না ইতাদি । বাংলা একাডেমি তার দশটি গান ইংরেজিতে অনুবাদ করে।
২০০৭ সালে প্রথমবারের মতো শাহ আবদুল করিমের জীবন ও কর্মভিত্তিক একটি বই প্রকাশিত হয? । যার নাম ‘শাহ আবদুল করিম সংবর্ধন-গ্রন্থ’ (উৎস প্রকাশন) । বইটি সম্পাদনা করেন লোকসংস্কৃতি গবেষক ও প্রাবন্ধিক সুমনকুমার দাশ। এছাড়াও তাঁর গানের বই প্রকাশিত হয়েছে ৭টি ।
তাঁর রচিত বইয়ের নামের তালিকায় উল্লেখযোগ্য হল: আনুমানিক ১৯৪৮ সালে রচনা করেন আফতাব সঙ্গীত। এছাড়া, গণ সঙ্গীত (১৯৫৭), কালনীর ঢেউ ( ১৯৮১), ধলমেলা ( ১৯৯০), ভাটির চিঠি (১৯৯৮), কালনীর কূলে (২০০১) প্রকাশিত হয়।
পুরস্কারের ঝুলিও কম নয় তাঁর। ২০০১ সালে লাভ করেন একুশে পদক। কথা সাহিত্যিক আবদুর রউফ চৌধুরি পদক ও রাগীব-রাবেয?া সাহিত্য পুরস্কার পান ২০০০ সালে । লেবাক এ্যাওয?ার্ড অর্জন করেন ২০০৩ সালে। মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার আজীবন সম্মাননা লাভ করেন ২০০৪ এ। বাংলাদেশ জাতিসংঘ সমিতি সম্মাননা অর্জন করেন ২০০৬ সালে । বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী সম্মাননা দেওয়া হয় ২০০৮ সালে।
বাউল এই শিল্পীকে সিলেটের নুরজাহান পলি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দুপুর থেকে লাইফসাপোর্ট দিয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছিল। কিন্তু ১২ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল ৭টা ৫৮ মিনিটে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। সম্পাদনা : ওমর ফারুক, আবদুল অদুদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]