• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » ‘গণতান্ত্রিক দেশের’ সূচকে আন্তর্জাতিক তিনটি সংস্থার জরিপে পিছিয়ে পড়ছে বাংলাদেশ


‘গণতান্ত্রিক দেশের’ সূচকে আন্তর্জাতিক তিনটি সংস্থার জরিপে পিছিয়ে পড়ছে বাংলাদেশ

আমাদের নতুন সময় : 15/09/2019


দেবদুলাল মুন্না : আজ আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস। জাতিসংঘের সদস্যভূক্ত দেশগুলোতে ২০০৭ সাল থেকে গণতন্ত্র চর্চাকে উৎসাহিত করার জন্য প্রতি বছর ১৫ সেপ্টেম্বর বিশেষ মর্যাদায় পালিত হয়। বাংলাদেশ ‘গণতান্ত্রিক দেশের’ সূচকে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার জরিপে দিনদিন পিছিয়ে পড়ছে। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশে গণতন্ত্র “ভুল পথে চলছে” উল্লেখ করে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস। দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশটি গণতন্ত্রের জন্যে হুমকি বলেও মন্তব্য করেছে মার্কিন আইনপরিষদ। সেসময় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইট টি ইমাম এমন বক্তব্য নাকচ করে বলেছিলেন, ‘এসব রিপোর্ট উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।
কিন্তু সম্প্রতি গণতন্ত্র ও নাগরিক অধিকার বিষয়ক আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ফ্রিডম হাউসের সদ্য প্রকাশিত ফ্রিডম ইন দ্য ওয়ার্ল্ড-২০১৯ রিপোর্টে বলা হয়েছে গত কয়েক বছরে বাংলাদেশের গণতন্ত্র, রাজনৈতিক ও নাগরিক অধিকার কমেছে। রিপোর্টে ১৯৫টি দেশকে তিনটি ভাগে অর্থাৎ মুক্ত, আংশিক মুক্ত এবং মুক্ত নয় এমনভাবে ভাগ করা হয়েছে। আর এতে বাংলাদেশের অবস্থান ‘আংশিক মুক্ত’ দেশের কাতারে। অন্যদিকে বাংলাদেশ এখন স্বৈরশাসনের অধীন এবং সেখানে এখন গণতন্ত্রের ন্যূনতম মানদ- পর্যন্ত মানা হচ্ছে না বলে মন্তব্য করেছে একটি জার্মান গবেষণা প্রতিষ্ঠান, বেরটেলসম্যান স্টিফটুং। এ মন্তব্য তারা করে চলতি বছরের ১৮ জুন। সংস্থার মুখপাত্র ফিদরেকো গিয়ার্স বলেন, ‘যতো সময় যাচ্ছে ততো বাংলাদেশের সামনের দিনগুলো হবে অন্ধকারাচ্ছন্ন।’ বিশ্বের ১২৯ টি দেশে গণতন্ত্র, বাজার অর্থনীতি এবং সুশাসনের অবস্থা নিয়ে এ জরিপ রিপোর্ট তৈরি করা হয়। রিপোর্টে ১২৯ টি দেশের মধ্যে ৫৮ টি দেশ এখন স্বৈরশাসনের অধীন এবং ৭১ টি দেশকে গণতান্ত্রিক বলে বর্ণনা করা হয়েছে। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৯২ নাম্বারে। পাকিস্তানের অবস্থান ৯৮ নম্বরে। মিয়ানমারের অবস্থান ১০৪ নম্বরে। অন্যদিকে ভারত আছে বেশ উপরের দিকে ২৪ নম্বরে। শ্রীলংকার অবস্থান ৪১ নম্বরে।
‘বেরটেলসম্যান স্টিফটুং’ ২০০৬ সাল থেকে নিয়মিতভাবে এ ধরণের রিপোর্ট প্রকাশ করে আসছে।
গতবছর যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (ইআইইউ) যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল সেখানে ‘গণতান্ত্রিক’ কিংবা ‘ত্রুটিপূর্ণ গণতান্ত্রিক’ দেশের তালিকায় বাংলাদেশের নাম নেই। গত এক দশক ধরে স্বৈরতান্ত্রিক ও ত্রুটিপূর্ণ গণতান্ত্রিক অবস্থার মাঝামাঝি ‘হাইব্রিড রেজিম’ তালিকায় দেশটি অবস্থান করছে বলে ইআইইউ বলেছিল। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]