• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » ব্রেক্সিট বিভক্তির জন্য ক্ষমা চেয়ে বরিসের তীব্র সমালোচনায় ডেভিড ক্যামেরুন


ব্রেক্সিট বিভক্তির জন্য ক্ষমা চেয়ে বরিসের তীব্র সমালোচনায় ডেভিড ক্যামেরুন

আমাদের নতুন সময় : 15/09/2019


লিহান লিমা : শনিবার স্কটল্যান্ডের দ্য টাইমস পত্রিকায় প্রকাশিত হয় সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরুনের সাক্ষাতকার। ২০১৬ সালের ব্রেক্সিট গণভোটে ইউরোপিয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পক্ষে ভোট পড়ায় তার বিদায় ঘণ্টা বেজেছিলো। এই সাক্ষাতকারে ক্যামেরুন বলেন, গণভোট আয়োজন করে সঠিক কাজটিই করেছিলেন, তবে ভোটের ফলাফলের কারণে সৃষ্ট অনির্দিষ্টতা ও বিভক্তির জন্য ‘ক্ষমা প্রার্থনা’ করেন তিনি। বলেন, ‘আমি দুঃখিত, আমি ব্যর্থ হয়েছি। কিছু মানুষ হয়তো আমাকে কখনোই ক্ষমা করতে পারবে না।’ বিবিসি, ডেইলি মেইল
ক্যামেরুন স্বীকার করেন, ব্রেক্সিটের পক্ষের গণভোট তাকে অনেক হতাশ করেছিলো। তিনি ভাবতে পারেন নি ইইউ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পক্ষে এতো রায় পড়বে। তবে সম্ভবত অভিবাসন নীতির কারণেই এমনটি হয়েছিলো। ক্যামেরুন বলেন, তিনি বিষয়টি নিয়ে প্রতিদিন ভাবেন। এই সময় তিনি দ্বিতীয় গণভোট দেয়া প্রয়োজন বলেও মন্তব্য করেন।
এই সাক্ষাতকারে ক্যামেরুন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও ক্যাবিনেট মন্ত্রী মাইকেল গভের তীব্র সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘তারা অত্যন্ত বেদনাদায়ক কাজ করছেন। বরিসতো ক্রমাগতো মিথ্যে বলে যাচ্ছেন। এমনকি তিনি নিজের সঙ্গেও মিথ্যে বলেন।’ তিনি সরকারের কার্যক্রমকে খর্ব করার জন্য তাদের অভিযুক্ত করেন। ক্যামেরুন বলেন, আমি চাই বরিস তার ইইউর সঙ্গে চুক্তি করেই ব্রেক্সিট কার্যকর করার প্রতিশ্রুতি কার্যকর করুন। কিন্তু চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট খুব ভালো কিছু নয়। আমি আশা করি এমনটি কখনোই হবে না।
সর্বশেষ ডেডলাইন অনুযায়ী আগামী ৩১ অক্টোবর ইইউ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার কথা রয়েছে ব্রিটেনের। তবে এর আগে ১৭ সেপ্টেম্বর ব্রেক্সিটের কৌশলগত সময়ের পূর্বে বরিসের পার্লামেন্ট বাতিলের বিষয়টি নিয়ে সুপ্রিমকোর্টে শুনানি হবে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]