• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » ট্রাফিক শৃক্সক্ষলা রক্ষায় সিনিয়র অফিসারদের মাঠে থাকার নির্দেশ ডিএমপি কমিশনারের


ট্রাফিক শৃক্সক্ষলা রক্ষায় সিনিয়র অফিসারদের মাঠে থাকার নির্দেশ ডিএমপি কমিশনারের

আমাদের নতুন সময় : 16/09/2019


সুজন কৈরী : ডিএমপির নতুন কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেছেন, ট্রাফিক ব্যবস্থার উপর বিশেষ নজর দেয়া হবে। ট্রাফিক ব্যবস্থা উন্নয়নে ইতোমধ্যে ট্রাফিক বিভাগের অফিসারদের সঙ্গে কথা বলে নির্দেশনা জারি করেছি। ট্রাফিকের সিনিয়র অফিসারদের মাঠে থেকে কাজ করতে হবে। বিশেষ করে সকালে অফিস শুরুর তিন ঘণ্টা ও বিকেলে অফিস ছুটির তিন ঘণ্টা ব্যস্ত সময়ে ট্রাফিক অফিসার অফিসে থাকতে পারবে না। এই সময়টা ডিসি থেকে শুরু করে ট্রাফিক বিভাগের নিম্নতম সদস্যকেও রাস্তায় থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে। এই নির্দেশনা সঠিকভাবে পালনে আমি কঠোর থাকবো।এরপর পৃষ্ঠা ৭, সারি
(শেষ পৃষ্ঠার পর) ট্রাফিক পুলিশ এককভাবে কাজ করে কতটা উন্নত করতে পারবো তা জানি না। তবে ট্রাফিককে সহনীয় পর্যায়ে আনতে চেষ্টা করবো। পরিস্থিতি যেমনই হোক আমরা দায়িত্ব পালন সাধারণ মানুষের পাশে থেকে সার্বক্ষণিক কাজ করবো।
গতকাল রোববার সকালে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে ডিএমপি কমিশনার এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, আমার নির্দেশনা প্রতিপালিত না হলে প্রোগ্রাম করে সুনির্দিষ্ট ট্রাফিক পয়েন্টগুলোতে ডিউটি বণ্ঠন করে দেব। কমিশনার বলেন, ট্রাফিক শৃক্সক্ষলা রক্ষা করা শুধু পুলিশের একার পক্ষে খুবই কঠিন। জানি না কতটুকু পারবো। তবে জনগণের সামনে দৃশ্যমান একটা পরিবর্তনের প্রচেষ্টা উপস্থাপন করতে চাই।
শফিকুল ইসলাম বলেন, শুধু সরকারের উন্নয়নমূলক কাজের জন্য নয়, নানাবিধ কারণে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় সমস্যা তৈরি হচ্ছে। ঢাকা শহরে কোথাও ৫ মিনিট বন্ধ থাকলে সেটির জের পড়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা। এমন কিছু ঘটে যেখানে ট্রাফিক পুলিশের কোনো নিয়ন্ত্রণ থাকে না। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ট্রাফিকের বিষয়টিকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিচ্ছি। কিন্তু ট্রাফিকের সব বিষয় আমার হাতে নেই। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]