• প্রচ্ছদ » সাবলিড » বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর কাশ্মীরে বিক্ষোভ হয়েছে দিনে গড়ে ২০টি


বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর কাশ্মীরে বিক্ষোভ হয়েছে দিনে গড়ে ২০টি

আমাদের নতুন সময় : 16/09/2019


আসিফজ্জামান পৃথিল : গত ৬ সপ্তাহে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে দিনে গড়ে ২০টির বেশি বিক্ষোভ হয়েছে। এই সময়ে পুরোপুরি আবরুদ্ধ ছিলো রাজ্যটি। নানা ধরণের কড়াকড়ির পরেও এই বিক্ষোভগুলো হয়েছে বলে এক সরকারি কর্মকর্তা এএফপিকে নিশ্চিত করেছেন। ডেইলি মেইল
দিল্লি রাজ্যটির বিশেষ মর্যাদা রদের পর থেকেই হিমালয়ান অঞ্চলটিতে উত্তেজনা বিরাজ করছে। কারফিউ, চলাফেরায় বিধিনিষেধ, বিপুল পরিমাণ গ্রেপ্তার, মোবাইল পরিসেবা বন্ধ, নিরাপত্তা বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েনের পরও এসব বিক্ষোভের ঘটনা ঘটেছে। এসব বিক্ষোভের বেশিরভাগই ঘটেছে রাজধানী ও বৃহত্তম শহর শ্রীনগরে বলে এরপর পৃষ্ঠা ২, সারি
(প্রথম পৃষ্ঠার পর) সূত্রটি শনিবার রাতে এএফপিকে নিশ্চিত করেছে। ৫ আগস্টের পর আনুষ্ঠানিক বিক্ষোভ হয়েছে ৭২২টি। শ্রীনগরের বাইরে উত্তর পশ্চিমাঞ্চলীয় বারমুল্লা জেলায় এবং দক্ষিণাঞ্চলীয় পুলওয়ামা জেলার বিক্ষোভ রয়েছে এই পরিসংখ্যানে। তবে এর বাইরের এলাকাগুলোর হিসেব এই পরিসংখ্যানে নেই। ৫ আগস্টের পর কাশ্মীর উপত্যকায় ২ শতাধিক বেসামরিক ব্যক্তি এবং ৪১৫ জন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য আহত হয়েছেন। ১৭০জন স্থানীয় রাজনীতিবীদ সহ ৪ হাজার ১০০ জনকে আটক করা হয়েছে। তবে গত দুই সপ্তাহে ৩ হাজার জনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে বলেও সূত্রটি জানায়। তবে কোনো রাজনীতিবীদ ছাড়া পেয়েছেন কিনা তা নিশ্চিত নয়।
তবে এখ নপর্যন্ত ভারতীয় কর্তৃপক্ষ নূন্যতম সহিংসতার দাবি করে আসছেন। তাদের দাবি নিরাপত্তা কড়াকড়ি শুরুর পর মাত্র ৫জন বেসামরিক ব্যক্তি মারা গেছেন। তবে বিদেশী গণমাধ্যমগুলো শতাধিক মৃত্যুর দাবি করছে। সর্বশেষ পুলিশ দাবি করেছে পাকিস্তান থেকে অস্ত্র ও গোলাবারুদ আনার সময় ৩ জন ‘সন্ত্রাসীকে’ আটক করা হয়েছে। কাশ্মীর নিয়ে পারমানবিক শক্তিধর দুই প্রতিবেশী ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা চরমে পৌঁছেছে। বিশ্লেষকরা ধারণা করছেন, বৈরী দুই দেশের মধ্যে যেকোন সময় যুদ্ধ শুরু হয়ে যেতে পারে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]