• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » দুর্নীতির বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ প্রধানমন্ত্রীর সাহসী পদক্ষেপ, থেমে গেলে দ্বিগুন উৎসাহে দুর্নীতিতে নামবে দুর্নীতিবাজরা, বললেন সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম


দুর্নীতির বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ প্রধানমন্ত্রীর সাহসী পদক্ষেপ, থেমে গেলে দ্বিগুন উৎসাহে দুর্নীতিতে নামবে দুর্নীতিবাজরা, বললেন সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম

আমাদের নতুন সময় : 17/09/2019


আশিক রহমান : শিক্ষাবিদ ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেছেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি যদি চলমান না থাকে, মাঝপথে থেমে যায়, তাহলে দুর্নীতিবাজরা দ্বিগুণ উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে আবারও অনিয়ম-দুর্নীতিতে নেমে পড়বে। এটা ধরে রাখা প্রধানমন্ত্রীর জন্য অনেক বড় চ্যালেঞ্জ হবে। তবে তিনি যদি চান, তাহলে তা চলমান রাখতে পারবেন। তিনি আরও বলেন, ছাত্রলীগ, যুবলীগের বিরুদ্ধে অ্যাকশন নিয়ে থেমে গেলে চলবে না। বড় বড় প্রকল্পগুলোতে যে নয়-ছয় হচ্ছে, সেদিকেও নজর দিতে। আগামী দুই-তিন সপ্তাহের মধ্যে যদি দেখা যায় প্রধানমন্ত্রী প্রশাসনের দুনীতির দিকেও নজর দিয়েছেন, ব্যাংক ডাকাতদের দিকে নজর দিচ্ছেন, সিটি করপোরেশনের অনিয়ম-দুর্নীতি, হাসপাতালের অনিয়ম-দুর্নীতির দিকেও নজর দিচ্ছেন, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছেন, তাহলে বোঝা যাবে পুরো সমাজকেই তিনি একটা মেসেজ দিচ্ছেন, আমি আর অনিয়ম-দুর্নীতি সহ্য করবো না। তখন সেটা সমাজ বা রাষ্ট্রের জন্য অত্যন্ত উপকারী হবে।
দুর্নীতির বিরুদ্ধে সাহসী পদক্ষেপের জন্য অভিনন্দন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে। তবে আমরা আশা করছিÑ রাষ্ট্রের সর্বত্র যে অনিয়ম-দুর্নীতি হচ্ছে তার বিরুদ্ধে শক্ত পদক্ষেপ তিনি নেবেন। প্রধানমন্ত্রীও এখন বুঝতে পারছেন রাষ্ট্রে অনিয়মিত-দুর্নীতির মতো ঘটনা এতো বেশি ঘটছে, ছাড় দেয়ার মতো এখন আর অবস্থা নেই। দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি যদি আরও দশ বছর আগে নেয়া যেতো তাহলে অনেক বেশি সুফল আমরা পেতাম। চুরি-চামারি, অনিয়ম-দুর্নীতি এতো ভয়ানক বিস্তৃতি লাভ করেছে দেশে, বলে শেষ করা যাবে না।
ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতাদের প্রটোকল নিয়ে চলা কবে থেকে শুরু হলো, যা বিপজ্জনক একটা পর্যায়ে চলে এলো, এটা তো শুধু অনিয়মই নয়, মানবাধিকার লঙ্ঘন। এসব নিয়ে তদন্ত করতে হবে। দুজন ছাত্রলীগ নেতাকে সরিয়ে দেওয়া হলো, আর যারা এখনো এসব অনিয়ম করে বেড়াচ্ছে তাদেরও আইনের আওতায় আনতে হবে। তারা তো বেআইনি কাজ করছে। দেরীতে হলেও দুর্নীতি বা দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন শুরু ইতিবাচক। বালিশকা-, পর্দাকা-, উগা-া সফরÑ রাষ্ট্রে যতো অনিয়ম-অনাচার রয়েছে, যারাই অনিয়ম-দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত সকলকেই আইনের আওতায় আনতে হবে। দুর্নীতিনামক একটা বড় ব্যাধী আমাদের শরীরে ছড়িয়ে পড়েছে, একটা-দুটো ওষুধ দিয়ে কাজ হবে না। ব্যাপকভাবে দুর্নীতি নির্মূলে মাঠে নামতে হবে বলেও মনে করেন এই শিক্ষাবিদ।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]