• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা দিবেন প্রধানমন্ত্রী, চার কারণে এবারের জাতিসংঘ সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ, জানালেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী


রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা দিবেন প্রধানমন্ত্রী, চার কারণে এবারের জাতিসংঘ সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ, জানালেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 19/09/2019

তাপসী রাবেয়া : দুই দেশের মধ্যে চলমান এই সংকট নিয়ে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা তৈরী করেছেন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন। গতকাল বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এ বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, প্রত্যাবাসন যেন হয় এবং রোহিঙ্গারা যেন নিরাপদ ও সুরক্ষায় থাকে, তাদের চলাফেরায় যেন স্বাধীনতা থাকে, সে বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী কথা বলতে পারেন। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে পৌঁছাবেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, যে সকল কারণে এবারের অধিবেশন বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ হবে তার প্রথম কারণ হল, সাধারণ বিতর্ক পর্বের মূল প্রতিপাদ্যের আলোকে এবং বর্তমান বিশ্ব প্রেক্ষাপটে জলবায়ু পরিবর্তন, দারিদ্র দূরীকরণ, মানসম্মত শিক্ষা, অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন, সকলের সুস্বাস্থ্য নিশিচতকরণ, নারীর ক্ষমতায়ণ এবং অভিবাসন ও শরণার্থী সমস্যার মত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে বহুপাক্ষিক পর্যায়ে সহযোগিতা বৃদ্ধি নিয়ে আলোচনা হবে। তাই প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে এ সকল বিষয়সমূহে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরা সম্ভব হবে।’
দ্বিতীয় কারণ হিসেবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এবারের অধিবেশনে সাধারণ বিতর্ক পর্বের পাশাপাশি টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য তথা এসডিজি বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু সভা অনুষ্ঠিত হবে। এই সভাগুলোতে এসডিজি বাস্তবায়নে বাংলাদেশের অগ্রগতি এবং এসডিজি’র লক্ষ্য পূরণে রাষ্ট্রগুলোর সহযোগিতাপূর্ণ মনোভাবে একযোগে কাজ করার বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে।
এছাড়াও তিনি সেখানে বাংলাদেশ ও অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশনের উদ্যোগে রোহিঙ্গা শীর্ষক একটি সাইড অনুষ্ঠানেও অংশ নেবেন। এই ইভেন্টে রোহিঙ্গাদের শিগগিরই নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে মুসলিম বিশ্বের সহযোগিতা ও করণীয় বিষয়ে আলোকপাত করা হবে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। একে আব্দুল মোমেন বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা মিয়ানমার তৈরি করেছে এবং এর সমাধান মিয়ানমারকেই করতে হবে। আমরা আশাবাদী, কারণ অনেক দেশ আমাদের প্রস্তাবগুলো সমর্থন করেছে, যেমন চীন। ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, জাতিসংঘের এ অধিবেশনে গত ৭২-তম অধিবেশনে দেওয়া ৫ দফা প্রস্তাব ও ৭৩-তম অধিবেশনে ৩ দফা এখনো প্রাসঙ্গিক।’
বাংলাদেশের সাফল্য তুলে ধরাকে চতুর্থ কারণ হিসেবে উল্লেখ্য করেছেন ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, ‘নতুন সরকার গঠনের পর এই অধিবেশনে বাংলাদেশের সাফল্য তুলে ধরা এবং দেশে চলমান অর্থনৈতিক উন্নয়ন, গণতন্ত্র ও সুশাসনের ধারা অব্যাহত রাখতে বাংলাদেশের কর্মপরিকল্পনা বিশ্ববাসীকে অবহিত করতে পারেন প্রধানমন্ত্রী।’এবারের সাধারণ পরিষদে শিক্ষামন্ত্রী, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী, বাণিজ্যমন্ত্রী, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্টের সভাপতি প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হবেন। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]