• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » সৌদির হাজার কোটি ডলারের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ঠেকাতে পারছে না ড্রোন-ক্রুজ


সৌদির হাজার কোটি ডলারের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ঠেকাতে পারছে না ড্রোন-ক্রুজ

আমাদের নতুন সময় : 19/09/2019


আসিফুজ্জামনি পৃথিল : অত্যাধুনিক পশ্চিমা সমরাস্ত্র ক্রয় করতে প্রতি বছর শত শত কোটি ডলার ব্যয় করে সৌদি আরব। এরমধ্যে অন্যতম প্রধান হলো আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। তবে এগুলোর নকশা করাই হয়েছে উঁচুতে থাকা উড়োজাহাজ বা ক্ষেপনাস্ত্রকে ভূপাতিত করতে। তবে নিচু দিয়ে উড়তে থাকা স্বস্তা ড্রোন এবং ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের বিপক্ষে এগুলো মোটেই কার্যকর নয়। শনিবার ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীরা সৌদি তেল শিল্পকে প্রায় অর্ধেক করে দেয়া হামলায় এগুলোই ব্যবহার করেছিলো। রয়টার্স
তবে ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীরা এই হামলার দায় স্বীকার করলেও যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরব এই ঘটনার জন্য ইরানকে দায়ি করছে। ইরান শুরু থেকেই এর দয়ি অস্বীকার করে আসছে। ১৯৯০-৯১ সালের উপসাগরীয় সঙ্কটের সময় সাদ্দাম হোসেন কুয়েতি তেলক্ষেত্রগুলো জ¦ালিয়ে দেয়ার পর প্রথম কোনো তেলক্ষেত্রে হামলার ঘটনা ঘটলো। সৌদি আরবের প্রধান আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা হলো যুক্তরাষ্ট্রের তৈরী প্যাট্রিয়ট বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র। এটি সৌদি শহরগুলোতে হুথিদের ছোড়া অধিক উচ্চতার ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ভূপাতিত করতে পারলেও ড্রোন আর ক্রুজ হামলা ঠেকাতে কার্যকর নয়। কেননা ড্রোন-ক্রুজ অনেক নিচু দিয়ে কম গতিতে উড়ে। এগুলোকে সনাক্তই করতে পারে না প্যাট্রিয়ট। দেশটির এক শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তা এ বিষয়ে রয়টার্সকে বলেন, ‘ড্রোনগুলো আমাদের জন্য এক বিশাল চ্যালেঞ্জ। এগুলো রাডারের নিচ দিয়ে উড়ে। ইয়েমেন এবং ইরানের সঙ্গে থাকা বিশাল সীমান্ত থেকে এগুলো সহজেই উড়ানো যায়।’
তবে সৌদি আরবের সামরিক বাহিনী বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছে না। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা বলছেন, প্যাট্রিয়টের মতো বিলিয়ন ডলারের ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে কয়ে হাজার ডলারের ড্রোন আর হোমমেড মিসাইল ঠেকানোটা হাস্যকর। সৌদিআরব পশ্চিমা অস্ত্রের গুদাম বানিয়ে ফেলেছে। কিন্তু তাদের সেনাবাহিনী তার সঠিক ব্যবহারই জানেনা। সেই কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা হোমমেড রকেট ঠেকাতে প্যাট্রিয়ট ব্যবহার করি। যুদ্ধ আর প্রযুক্তিকে আমরা ঠাট্টা বানিয়ে ফেলেছি। আমরা একটা ঝুপড়ি ঘরে হামলা চালাই স্ট্রাইক ঈগল এফ-১৫ যুদ্ধবিমান নিয়ে। এভাবে যুদ্ধ হয়না।’ সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]