• প্রচ্ছদ » » রাজনৈতিক সংগঠনগুলোর মধ্যে কেউ অপরাধ করলে শাস্তি হওয়া জরুরি, বললেন মোহাম্মদ এ আরাফাত


রাজনৈতিক সংগঠনগুলোর মধ্যে কেউ অপরাধ করলে শাস্তি হওয়া জরুরি, বললেন মোহাম্মদ এ আরাফাত

আমাদের নতুন সময় : 20/09/2019


আশিক রহমান : সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক মোহাম্মদ এ আরাফাত বলেছেন, রাজনৈতিক সংগঠনগুলোর মধ্যে কেউ অপরাধ করলে শাস্তি হওয়া জরুরি। ১৯ সেপ্টেম্বর এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি আরও বলেন, অনৈতিক কর্মের জন্য সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার সঙ্গে কেউ ফৌজদারি অপরাধ করলে আইনি ব্যবস্থা হতে হবে। কোনো অনিয়ম বা অপরাধকে ইনিয়ে-বিনিয়ে ডিফেন্ড করা যাবে না।
ডয়চে ভেলের বাংলা বিভাগের প্রধান খালেদ মুহিউদ্দীন তার এক লেখায় যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর কাছে প্রশ্ন রাখেন, যুবলীগের বিভিন্ন সদস্যরা যে ক্যাসিনো খুলেছেন, আইন-কানুনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে টাকা কামাচ্ছেন, ১৮ সেপ্টেম্বরের আগ পর্যন্ত আপনি তা জানতেন না বলে কী বুঝাতে চাইলেন জনাব ওমর ফারুক চৌধুরী? যুবলীগের কাজ সম্পর্কে আপনি কী জানেন? কী করে যুবলীগ? কেন করে? বাংলাভিশনের বার্তা প্রধান মোস্তফা ফিরোজ এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে বলেন, যুবলীগের চেয়ারম্যান দলীয় নেতাদের বিরুদ্ধে আটক অভিযানকে বিরাজনীতিকরণের ষড়যন্ত্রের আভাসও পেয়েছেন। তাহলে কি দলীয় রাজনীতি ছত্রছায়ায় এমন সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, মাদক, টেন্ডারবাজি, খুন, ছিনতাইয়ের মতো অপরাধ কর্ম চলতেই থাকবে? এসবের বিরুদ্ধে অভিযান মানে কি বিরাজনীতিকরণ? দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর অথরিটিকে চ্যালেঞ্জ করা কি দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ নয়?
রাজনৈতিক বিশ্লেষক শরিফুজ্জামান শরীফ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কঠোরতার (তার দলের লোকজন এর ভাষ্য) প্রথম বিরোধিতা এলো তার আত্মীয়ের ভেতর থেকে। কেউ বলতে পারেন, তিনি যুবলীগের চেয়ারম্যান কিন্তু আত্মীয় না হলে এই পদ তিনি পেতেন না, চেয়ারম্যান হয়ে যেতেন মির্জা আজম। ওমর ফারুক শেখ সেলিমের আরও কাছের আত্মীয় এটা সবাই জানি। প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ আত্মীয়ের মন্ত্রী না করার ক্ষোভ কি ওমর ফারুকের মুখ দিয়ে এই সময়ে প্রকাশ করানো হচ্ছে?




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]