আজ মীনা দিবস ‘মনের মত স্কুল পেলে,শিখব মোরা হেসে খেলে’

আমাদের নতুন সময় : 23/09/2019


আরিফা রাখি : আজ ২৪ সেপ্টেম্বর মীনা দিবস। মীনা চরিত্রটি বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ভারত, নেপাল তথা দক্ষিণ এশিয়ার মেয়ে শিশুদের প্রতিনিধিত্বকারী একটি বালিকা চরিত্র। জনপ্রিয় কার্টুন ‘মীনা’ নামের বালিকা চরিত্রটি মেয়ে শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সোচ্চার। ১৯৯৮ সাল থেকে দেশব্যাপী মিনা দিবস উদযাপন করে সরকারি-বেসরকারি সংস্থা।

মীনা দিবসে মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা থিম নিয়ে এবার দিবসটির প্রতিপাদ্য হলো ‘মনের মত স্কুল পেলে,শিখব মোরা হেসে খেলে’।

বিদ্যালয়ে যেতে সক্ষম শতভাগ শিশুর বিদ্যালয়ে ভর্তি নিশ্চিতকরণ এবং ঝরে পড়া রোধের লক্ষ্যকে সামনে রেখে আজ উদযাপিত হচ্ছে ‘মীনা দিবস’। শিক্ষা ও স্বাস্থ্যবিষয়ক উন্নয়নের পাশাপাশি বাল্য বিয়ে, পরিবারে অসম খাদ্য বণ্টন, শিশুশ্রম রোধ প্রভৃতি বিষয়ে সচেতন করা ও কার্যকরী বার্তা পৌঁছানোর ক্ষেত্রে ‘মীনা’ চরিত্রটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

দারিদ্র, কুসংস্কারে আচ্ছন্ন এই সমাজে সবচেয়ে বেশি দুর্দশাগ্রস্থ মেয়েরা। মেয়েদের সমস্যার প্রতি মনোযোগের সঙ্গে গুরুত্ব প্রদান ও তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠা উপলব্ধি থেকে দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা পরিষদ ১৯৯০ দশকে কন্যা শিশু দশক হিসেবে ঘোষণা করে। এই ঘোষণার আলোকে দক্ষিণ এশিয়ার ইউনিসেফ এবং তার সহযোগীদের মিলিত উদ্যোগে মিনাকার্টুন শিক্ষা উপকরণ তৈরি করা হয়। ফিলিপাইনে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের অ্যানিমেশন স্টুডিও হান্না বারবারায় ১৯৯২ সালে মীনা কার্টুনের প্রথম বেশ কয়েকটি পর্ব নির্মাণ করা হয়। এরপর ভারতের রামমোহন স্টুডিওতে নির্মাণ করা হয় মীনা কার্টুন। ইউনিসেফ ও বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিস প্রথম রেডিওর জন্য মীনা সিরিজ তৈরি করে। ১৯৯২ সালে একজন ১০ বছর বয়সী বালিকা হিসেবে মিনা চরিত্রের সৃষ্টি। এই চরিত্রটির মাধ্যমে শিশুদের অধিকার, শিক্ষা, সাংস্কৃতি, বিনোদন, শারীরিক ও মানসিকভাবে বেড়ে ওঠার চিত্র ফুটে ওঠে। দক্ষিণ এশিয়ার দেশসমূহে মেয়ে শিশুর অধিকার প্রতিষ্ঠার পথ হিসেবে বেছে নেয়া হয় মীনা চরিত্রটি ।

প্রতি বছরের মতো এ বছরও মিনা দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে জেলা, উপজেলা পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের নিয়ে মীনা বিষয়ক রচনা প্রতিযোগিতা, চিত্রাঙ্কন, যেমন খুশি তেমন সাজো ইত্যাদি কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। সম্পাদনা : কাজী নুসরাত




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]