চিলির জাতীয় ক্রিকেট দলে বাংলাদেশী তরুণ শোয়েব

আমাদের নতুন সময় : 23/09/2019


রাকিব উদ্দীন : ২০১৬ সালে চিলির জাতীয় ক্রিকেট দলে অভিষেক হয় বাংলাদেশী তরুণ শোয়েব গাজী। হাজার মাইল দূরের দেশটির ক্রিকেটে ঝড় তুলছেন তিনি। বোলিংয়ে প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানের কাছে যিনি মূর্তিমান আতঙ্ক। আর ব্যাটিংয়ে যেন আস্থার আরেক নাম। সূত্র : সময় টিভি। শোয়েব গাজীর জন্ম আর বেড়ে উঠা বাংলাদেশেই। জীবিকার প্রয়োজনে ২০১৫ সালে পাড়ি জমান লাতিন আমেরিকার দেশ চিলিতে। এক বছর বাদেই জায়গা করে নেন দেশটির জাতীয় ক্রিকেট দলে।
চিলি জাতীয় ক্রিকেট দলের বাংলাদেশি ক্রিকেটার শোয়েব গাজী বলেন, ‘চিলিতে আমি যখন গিয়েছিলাম তখন সেখানে বাংলাদেশি তেমন কেউ ছিলো না। বাংলা কথা বলার লোকও পাওয়া যেতো না। চিন্তা করলাম বাংলাদেশের মত চলাফেরা করতে না পারলেও ক্রিকেটটা চালিয়ে যাওয়া যায়। লীগে আমি যাওয়ার পরই আমাকে তারা ওপেনিং এ বল করতে পাঠায়। আমার প্রথম বলটি ছিলো ইয়র্কার এবং আমি উইকেটও পেয়ে যাই। সেখান থেকেই চিলির ক্রিকেট ম্যানেজম্যান্ট কমিটি লীগ শেষে আমাকে জানায় আমরা তোমাকে সিলেক্ট করেছি। তুমি এ বছর চিলি জাতীয় দলের হয়ে খেলতে যাবে’
শোয়েব মূলত একজন পেসার। সঙ্গে ব্যাটিংটাও করেন জুতসই। দলে তার অন্তর্ভূক্তির পর থেকেই দক্ষিণ আমেরিকার ক্রিকেটে দোর্দ- প্রতাপে এগিয়ে চলছে চিলি। ২০১৬ সালে জিতেছে সাউথ আমেরিকান চ্যাম্পিয়নশিপ। পরের বছরেই পেয়েছে আইসিসির অ্যাসোসিয়েট মেম্বারশিপ।
শোয়েব গাজী আরো বলেন, ‘একজন বিদেশি হিসেবে তাদের দেশের জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া আমার জন্য অনেক গর্বের।
বিসিবির কাছে জানালেন ছোট্ট আকুতি। চিলির ক্রিকেটের উন্নয়নে বাংলাদেশকে বন্ধুর মতো পাশে চাইলেন। এ প্রসঙ্গে শোয়েব বলেন, ‘চিলি ক্রিকেট বোর্ড ও বিসিবির মধ্যে যোগাযোগ করাতে চাচ্ছি। দুদেশের মধ্যে জেনো খেলার আয়োজন করা যায় সেটাই চাচ্ছি।
অক্টোবরে শুরু হচ্ছে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আমেরিকা মহাদেশের প্রাক বাছাই। সব বাধা পেরুতে পারলে হয়তো ২০২১ এ ভারতের মাটিতে বাংলাদেশকে লড়তে হবে কোন এক বাংলাদেশির বিপক্ষে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]