• প্রচ্ছদ » আমাদের বিশ্ব » আরো একবার পার্লামেন্ট স্থগিত করতে পারেন জনসন, আক্রমণাত্মক বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে বাধ্য করতে পারেন এমপিরা


আরো একবার পার্লামেন্ট স্থগিত করতে পারেন জনসন, আক্রমণাত্মক বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে বাধ্য করতে পারেন এমপিরা

আমাদের নতুন সময় : 27/09/2019

Britain’s Prime Minister Boris Johnson leaves 10 Downing Street in central London on September 4, 2019, to take part in his first Prime Minister’s Questions (PMQs) at the House of Commons. – British Prime Minister Boris Johnson braced for another showdown in parliament on Wednesday after a humiliating defeat over his Brexit strategy, with MPs set to vote on a law aimed at blocking a no-deal departure. Johnson has said he will seek an early general election if MPs vote against him again, intensifying a dramatic political crisis ahead of his October 31 Brexit deadline. (Photo by DANIEL LEAL-OLIVAS / AFP) (Photo credit should read DANIEL LEAL-OLIVAS/AFP/Getty Images)

আসিফুজ্জামান পৃথিল : সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের কার্যক্রম শুরু হলেও ওয়েস্টমিনিস্টারে চরম বিশৃৃঙ্খলা চলছে। জানা গেছে আবারও পার্লামেন্টকে প্ররোগেট বা স্থগিত করে দিতে পারেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। তার এই উন্মত্ত আচরণকে যেকোনো মূল্যে ঠেকিয়ে দিতে চান এমপিরা। এদিকে পার্লামেন্ট খুলতেই অতি আক্রমণাত্মক অশ্লীল বক্তব্য দেয়ায় বরিস জনসনকে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চাইতে বাধ্য করতে চান কিছু এমপি। দ্য গার্ডিয়ান, ডেইলি মেইল।
তবে পার্লামেন্টকে স্থগিত করা না গেলেও অন্তত ৩ দিনের ছুটিতে পাঠাতে চায় ব্রিটিশ সরকার। এজন্য বৃহস্পতিবার রাতে (বাংলাদেশ সময় শুক্রবার মধ্যরাত) ভোটাভুটি হওয়ার কথা ছিলো। এটি হবে এই শারদিয়া অধিবেশনের প্রথম রিসেস বা মুলতবি। এটি অন্য সময়ে হলে একে সাধারণ ঘটনা হিসেবেই নেয়া হতো। কিন্তু যুক্তরাজ্যের বর্তমান পার্লামেন্টারিয়ান রাজনীতিতে এই ঘটনাকে স্বাভাবিকভাবে নিচ্ছেন না কোন এমপিই। তারা এটিকে একটি ফাঁদ হিসেবেই দেখছেন।
এদিকে পার্লামেন্টে বরিসের দেয়া বক্তব্যের ভাষাকে বিশ্রি ওও কুরুচিপূর্ণ বলে মন্তব্য করেছেন তার বোন র‌্যাচেল জনসন। অ্যাটর্নি জেনারেল জো কক্সকে নিয়ে দেয়া বরিসের বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করে র‌্যাচেল বলেন, ‘আমার ভাই যেসব শব্দ ব্যবহার করেছে তা কোনো ভালো মানুষ ব্যবহার করে না। সে জনগনের ম্যান্ডেট পূরণের নামে যা করছে তা ভীষণভাবে নিন্দনীয়।’ লিবারেল ডেমোক্রেট নেতা জো উইলসন বলেছেন, ব্রিটিশ রাজনীতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দর্শন প্রতিষ্ঠা করতে চান বরিস জনসন। তিনি বলেন, ‘আমরা রাজনীতিবিদরা কোন ধরণের ভাষা ব্যবহার করবো, তা ভীষণভাবে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ আমাদের থেকে জনগন শেখে। আমি নিশ্চিত আমি একা নই যে ভ্রু কুঁচকে অ্যাটলান্টিকের ওপাড়ে তাকাচ্ছে। ডোনাল্ড ট্রাম্প যে ধরণের ব্রিশ্রি ভাষা ব্যবহার করেন, বরিসের ভাষাজ্ঞান তার চেয়ে উত্তম নয়।’
বুধবার যুক্তরাষ্ট্র থেকে তড়িঘড়ি করে ফিরে বরিস জনসন পার্লামেন্ট শুরুর অধিবেশনে যোগ দেন। অনাকাঙ্খিতভাবে তিনি সুপ্রিম কোর্টের তুমুল সমালোচনা করেন। তিনি আবারও বলেছেন, তার বিশ^াস সুপ্রিম কোর্ট ভুল। যুক্তরাজ্যের সর্বোচ্চ এই আদালতের সিদ্ধান্তের বিষয়ে দেশটির সরকার প্রধানরা এরকম প্রকাশ্যে সমালোচনা করছেন, এমন ঘটনা বেশ বিরল। বরিস আরো বলেন, কোনো রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের রুলিং দেয়া ঠিক নয়।
এদিকে বিরোধীদলীয় নেতা জেরেমি করবিন অভিযোগ করেছেন, নিজের কর্মকা-ের দ্বারা পার্লামেন্টারি ভব্যতা নষ্ট করছেন বরিস জনসন। করবিন বলেন, ‘দেশের ভালোর জন্যই তার সরে যাওয়া উচিত। সর্বোচ্চ আদালত বলছে প্রধানমন্ত্রী আইন ভেঙেছেন। তিনি জনগনের জন্য এক গুরুত্বপূর্ণ সময়ে গণতান্ত্রিক দায়বদ্ধতা নষ্ট করেছেন। প্রধানমন্ত্রীও আইনের উর্ধে নন। আমরা অবশ্যই নতুন নির্বাচন চাই। তবে তার আগে চাই সময়সীমা বর্ধন।’ এদিকে বিরোধীদলকে একটি আস্থা ভোট আয়োজনের চ্যলেঞ্জ জানিয়ে বরিস বলেছেন, পারলে আমার উপর অনাস্থা এনে দেখান। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]