সৌদি বাদশাহ সালমানের দেহরক্ষী জেনারেল আজিজকে গুলি করে হত্যা

আমাদের নতুন সময় : 30/09/2019

রাশিদ রিয়াজ : সৌদি বাদশাহ সালমানের খ্যাতনামা দেহরক্ষী মেজর জেনারেল আবদুল আজিজ আল-ফাহগাম গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হওয়ার কারণ হিসেবে বলা হয়েছে রাজপরিবারের সঙ্গে তার মতদ্বৈততা। লোহিত সাগরের তীরবর্তী জেদ্দা নগরীতে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। সৌদি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রচারিত খবরে বলা হয়েছে- আবদুল আজিজ আল-ফাহগাম তার এক বন্ধুর বাসায় অপর এক বন্ধুর সঙ্গে কথা কাটাকাটিতে লিপ্ত হন। তখন তার বন্ধু তাকে গুলি করলে তিনি মারাত্মক আহত হন। সেসময় আরো পাঁচজন নিরাপত্তা কর্মীও আহত হন। পরে জেনারেল আবদুল আজিজ মারা যান। একবাক্যের টুইট বার্তায় এ কথা জানিয়েছে সৌদি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন। এ বিষয় বিস্তারিত আর কিছু বলা হয় নি। এ ছাড়া দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও এখন পর্যন্ত এ বিষয় মুখ খুলে নি। গার্ডিয়ান/স্পুটনিক/পারস টুডে/ওকাজ
সৌদি কর্তৃপক্ষ বলছে, ব্যক্তিগত বিরোধের জের ধরে মেজর জেনারেল আব্দুল আজিজ আল ফাঘামকে হত্যা করা হয়েছে। দুই পবিত্র মসজিদের খাদেমের ব্যক্তিগত দেহরক্ষী ছিলেন মেজর জেনারেল আব্দুল আজিজ আল ফাঘাম।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জেনারেল আজিজকে হত্যার পর অনেকেই তার ছবি সম্বলিত শোক বার্তা ও সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। বাদশাহ সালমান ছাড়াও সাবেক সৌদি বাদশাহ আবদুল্লাহর সঙ্গে জেনারেল আজিজের ঘনিষ্ঠতা ছিল। তাকে গুলি করে হত্যার সময় আরেক ফিলিপিনো কর্মী মারাত্মকভাবে আহত হয়েছে। গার্ডিয়ান বলছে জেনারেল আজিককে গুলির সময় সেখানে প্রতিপক্ষের সঙ্গে ছোটখাটো এক বন্দুক যুদ্ধ হয়। এবং জেনারেল আজিজকে লক্ষ্য করে যে গুলি করে সেও গুলিতে মারা যায়। সৌদি দৈনিক ওকাজ জেনারেল আজিজকে বাদশাহ সালমানের রক্ষক হিসেবে অভিহিত করে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]