পেঁয়াজ খাওয়া ছেড়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 05/10/2019

পুনর্বিবেচনা করবে ভারত
রমাপ্রসাদ বাবু : ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়ায় পুরো উপমহাদেশজুড়ে হেঁসেলে হেঁসেলে যে দুঃস্বপ্ন নেমে এসেছে, সে দিকে ইঙ্গিত করে দিল্লির এক অনুষ্ঠানে রসিকতার সুরেই কটাক্ষ হানলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভারতের পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়া প্রসঙ্গে হেসে হেসে হিন্দিতে বলেন, হঠাৎ আপনারা বাংলাদেশে পেঁয়াজ পাঠানো বন্ধ করে দিয়ে আমাদের মুশকিলে ফেলে দিয়েছেন। আগামীতে যদি এমন কিছু করেন, তা হলে আমাদের আগে জানিয়ে দেবেন। (আচানাক আপনে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ ক্যার দিয়া, হামারে লিয়ে এ মুশকিল বান গ্যায়া। তো আগে সে আগার কিছিবি তারাপ ত্র্যাসি কারনা হ্য তো হামে প্যাহেলেছে বাতা দেনা।) খবর বিডিনিউজ, বাংলা ট্রিবিউন ও চ্যানেল আই’র।
গতকাল শুক্রবার নয়াদিল্লিতে ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্য ফোরামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।
প্রধানমন্ত্রী হিন্দিতে আরো বলেন, পেঁয়াজ মে থোড়া দিক্কত হো গিয়া হামারে লিয়ে। মুঝে মালুম নেহি, কিউ আপনে পেঁয়াজ বন্ধ কর দিয়া! ম্যায়নে কুক কো বোল দিয়া, আব সে খানা মে পেঁয়াজ বন্ধ কারদো। (পেঁয়াজ নিয়ে একটু সমস্যায় পড়ে গেছি আমরা। আমি জানি না, কেন আপনারা পেঁয়াজ বন্ধ করে দিলেন। আমি রাঁধুনীকে বলে দিয়েছি, এখন থেকে রান্নায় পেঁয়াজ বন্ধ করে দাও।)
এদিকে, প্রধানমন্ত্রীর এই মন্তব্যের পর তড়িঘড়ি ভারত সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করে ভোলবদলে বাধ্য হচ্ছে ভারত। শুক্রবার সন্ধ্যায় দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, পেঁয়াজ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কী বলেছেন, সেটা আমাদের চোখে পড়েছে। তার এই উদ্বেগ কীভাবে প্রশমিত করা যায় তা আমরা দেখছি।
পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা বাংলাদেশের জন্য কিছুটা শিথিল করা যায় কিনা এবং সেটা কীভাবে ও কতটুকু করা সম্ভব, তা নিয়ে ইতোমধ্যেই পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে।
আশা করা হচ্ছে আজ দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীদের মুখোমুখি বৈঠকের পর পেঁয়াজ নিয়ে বাংলাদেশের জন্য একটা বড় সুখবর আসতে পারে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]