• প্রচ্ছদ » স্ক্রল » ড. আতিক রহমান বললেন, বাংলাদেশে বাস্তুচ্যুত মানুষের সংখ্যা কমাতে হলে কারিগরি শিক্ষা বাড়াতে হবে


ড. আতিক রহমান বললেন, বাংলাদেশে বাস্তুচ্যুত মানুষের সংখ্যা কমাতে হলে কারিগরি শিক্ষা বাড়াতে হবে

আমাদের নতুন সময় : 06/10/2019

জুয়েল খান : যতোই দিন যাচ্ছে দেশে ঘরবাড়িছাড়া মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। এভাবে চলতে থাকলে আগামী দশকে বাংলাদেশে দুই কোটি মানুষ বাস্তুহারা হবে বলে মনে করেন পরিবেশ বিজ্ঞানী ড. আতিক রহমান। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রাকৃতিক দুর্যোগ দিন দিন বেড়েই চলেছে। গত সাত-আট বছরে দক্ষিণাঞ্চলে গড়ে আট শতাংশ মানুষ কমেছে। কারণ প্রাকৃতিক দুর্যোগ এবং লবণাক্ততা বেড়ে যাওয়া। বিশেষ করে খরা, বন্যা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ এবং সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলে শীত মৌসুমের পর যে পরিমাণ শৈত্য প্রবাহ ও কুয়াশা পড়ে, অতীতে এমন হতো না। যেখানে দেশের জনসংখ্যা বাড়ছে সেখানে কিছু এলাকার মানুষ কমে যাচ্ছে, তার মানে হচ্ছে তারা কোথাও না কোথাও যাচ্ছে। এই মানুষগুলো মূলত শহর পর্যায়ে ভাসমানভাবে থাকছে এবং একটা অংশ স্বল্প সময়ের জন্য বিভিন্ন ধরনের শারীরিক পরিশ্রমের কাজে জড়াচ্ছে। এই লোকগুলো দেশের জন্য বাড়তি চাপ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। কেননা তাদের তেমন কোনো শিক্ষা নেই। অধিকাংশই অদক্ষ মানুষ। তারা শিল্পকারখানায় দক্ষ শ্রমিক হিসেবে কাজ করতে পারছে না, বড়জোর কেয়ারটেকার কিংবা দারোয়ান হিসেবে কাজ করছে। সরকার যেসব এক্সপোর্ট প্রসেসিং জোন (ইপিজেড) করছে সেখানে কাজ করতে পারছেন না কেন? কারণ তারা কারিগরি কাজে দক্ষ নয়, কিন্তু শিল্পকারখানায় অদক্ষ লোকের কোনো চাহিদা নেই। ফলে এই সুযোগ নিয়ে ভারতের অনেক দক্ষ শ্রমিক বাংলাদেশের বিভিন্ন শিল্প-কারখানায় কাজ করছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]