• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » ঢাকার জেনেভা ক্যাম্পে বিহারিদের বিক্ষোভ অগ্নিসংযোগ, সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত শতাধিক


ঢাকার জেনেভা ক্যাম্পে বিহারিদের বিক্ষোভ অগ্নিসংযোগ, সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত শতাধিক

আমাদের নতুন সময় : 06/10/2019

মাসুদ আলম : নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুতের দাবিতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর জেনেভা ক্যাম্প এলাকায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে বিহারিরা। এসময় পুলিশ ও স্থানীয় কাউন্সিলরের অনুসারীদের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের দফা দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং সংঘর্ষ চলে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাবার বুলেট, টিয়ারশেল, ফাঁকা গুলি, লাঠির্চাজ করে আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে পুলিশসহ প্রায় শতাধিক আহত হয়েছে। পুলিশের রাবার বুলেটের আঘাতে মোহাম্মদ রকি নামে এক মেকানিক চোখে গুরুতর আঘাত পান। শনিবার দুপুর থেকে শুরু হয়ে বিকেল পর্যন্ত সংঘর্ষ চলে ।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত দুই মাস ধরে জেনেভা ক্যাম্পে বিদ্যুতের সমস্যা চলছে। প্রতিদিন ৮-১০ ঘণ্টা করে বিদ্যুৎ থাকে না। গত শুক্রবার থেকে জেনেভা ক্যাম্পে বিদ্যুতের দাবিতে আন্দোলন শুরু হয়। তারই ধারাবাহিকতায় শনিবার দুপুর ১২টা থেকে আন্দোলনকারীরা জেনেভা ক্যাম্প থেকে মোস্তাকিম কাবাব রেস্টুরেন্ট পর্যন্ত রাস্তা অবরোধ করে। পরে রাস্তায় আগুন জ¦ালিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। এসময় স্থানীয় কাউন্সিলর ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের বোঝানোর চেষ্টা করলে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায় আন্দোলনকারীরা তাদের লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এরপর শুরু হয় সংঘর্ষ। দুপুর দেড়টা থেকে সংঘর্ষ ব্যাপক আকার ধারণ করে। সংঘর্ষের একপর্যায়ে রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের পেছনের সড়কেও সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। বিক্ষোভকারীরা পুলিশের একটি পিকআপ ভ্যানসহ কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর করে। এছাড়া একটি লেগুনায় আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে ওই এলাকায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় পথচারী ও এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।
স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান মিজান বলেন, প্রতি মাসে এক কোটি ২০ লাখ টাকার বিদ্যুৎ খরচ হয় জেনেভা ক্যাম্পে। ত্রাণ মন্ত্রণালয় বিদ্যুৎ বিল না দেওয়ায় প্রায় ৩৪ কোটি টাকা বকেয়া হয়েছে, ফলে বেশি লোডশেডিং হচ্ছে।
ক্যাম্পের বাসিন্দা জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, এখানে প্রায় ৪০ হাজার বাসিন্দার বসবাস। তাদের এখানকার বিদ্যুৎ বিল দেয় জাতিসংঘ। প্রথমে ওয়ার্ড কাউন্সিলরের লোকজন তাদের ওপর হামলা চালান। এরপর পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়। এতে তাদের প্রায় ৮০ জন আহত হয়। পুলিশ ১০ জনকে আটক করেছে। বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে উচ্চ আদালতের নিদের্শ থাকলেও কর্তৃপক্ষ মানছে না।
মোহাম্মদপুর থানার ডিউটি অফিসার বলেন, বিকেল চারটার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে রাতেও ক্যাম্প এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের ডিসি আনিসুর রহমান জানান, ১৫ জন সদস্য আহত হয়েছে। তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছেন। এ ঘটনায় ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। সম্পাদনা : কাজী নুসরাত




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]