নতুন ৩১৪ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি ২ জেলায় ২ জনের মৃত্যু

আমাদের নতুন সময় : 07/10/2019

ফাতেমা, আব্দুম মুনিব : ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রবিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৩১৪ জন নতুন রোগী। এর মধ্যে ঢাকায় ৭৩ জন এবং বাকি ২৪১ জন দেশের অন্যান্য এলাকায় ভর্তি হয়েছেন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম।
সরকারি তথ্যমতে, গত জানুয়ারি থেকে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত সারা দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সর্বমোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৮৯ হাজার ৯৩০ জন। চিকিৎসা শেষে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে চলে গেছেন ৮৮ হাজার ৩৫৬ জন। অর্থাৎ সারাদেশে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পাওয়া রোগীর সংখ্যা ৯৮ শতাংশ।
ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব এ বছর এশিয়ার অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ভয়াবহ আকার ধারণ করেছিলো। তবে গত সেপ্টেম্বরের শুরু থেকে পরিস্থিতির উন্নতি হওয়া শুরু হয় এবং বর্তমানে কমে আসছে নতুন ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। বর্তমানে দেশের হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু রোগে ভর্তি রোগী আছেন ১ হাজার ৩৩৮ জন। তাদের মধ্যে ঢাকায় চিকিৎসা নিচ্ছেন ৪৭০ জন।
রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) এ বছর ডেঙ্গু সন্দেহে ২৩৬টি মৃত্যুর তথ্য পেয়েছে। এর মধ্যে সংস্থাটি এ পর্যন্ত ১৩৬টি ঘটনার পর্যালোচনা সমাপ্ত করে ৮১টি মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করেছে।
এদিকে চট্টগ্রাম নগরীর বেসরকারি ন্যাশনাল হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুমি বৈদ্য (১৯) নামে এক ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দিনগত রাতে তার মৃত্যু হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ কক্ষের সমন্বয়ক চিকিৎসক নুরুল হায়দার।
সুমি বৈদ্য খুলশী থানার ফয়েস লেক এলাকার বৈশাখী ভবনের সুনীল বৈদ্যের মেয়ে। তিনি ওমরগণি এমইএস বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এ বছর এইচএসসি পাস করেছেন।
চিকিৎসক নুরুল হায়দার জানান, সুমিকে গত ৩০ সেপ্টেম্বর জ্বরে আক্রান্ত অবস্থায় বেসরকারি ইউএসটিসি হাসপাতালে ভর্তি করে তার পরিবার। শুক্রবার তার অবস্থার অবনতি হলে প্রথমে বেসরকারি মেডিকেল সেন্টারে ও পরে ন্যাশনাল হাসপাতালে নেয়া হয়। শনিবার রাতে ন্যাশনাল হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে।
তাছাড়া, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। মৃত শামিম বিশ্বাস (২৭) দৌলতপুর উপজেলার ঝাউদিয়া গ্রামে।
ছেলের মৃত্যু বিষয়টি নিশ্চিত করে বাবা রফিকুল বিশ^াস জানান, ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে শামীম গত এক সপ্তাহ আগে দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি হয়।
কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার নুরুন নাহার বেগম জানান, আশঙ্কজনক অবস্থা নিয়েই শনিবার সকালে ভর্তি হয় শামিম বিশ্বাস। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]