মোদী সরকার ১১ কোটি টয়লেট বানালেও ব্যবহার করে না ভারতীয়রা

আমাদের নতুন সময় : 07/10/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : ৫ বছরের মধ্যেই ভারতের ১৩০ কোটি জনসংখ্যাকে স্বাস্থ্যসম্মত টয়লেট সেবার আওতায় আনতে একটি উচ্চভিলাসী উদ্যোগ নিয়েছে বর্তমান সরকার। সে লক্ষে তৈরী করা হয়েছে ১১ কোটি টয়লেটও। কিন্তু কোনভাবেই দূর করা যাচ্ছে না ভারতবাসীদের খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগের অভ্যাস। সিএনএন
গত সপ্তাহে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ঘোষণা করেছেন, তার দেশ খোলা স্থানে মলত্যাগ মুক্ত এখন। কিন্তু মানুষ এখনও খোলা মাঠ, ঝোপঝাড়, বন-বাদার, জলাশয় আর বিভিন্ন খোলা স্থানে নিজেদের ভারমুক্ত করছেন। তারা টয়লেট থাকার পরেও টয়লেট ব্যবহার করতে চাচ্ছেন না। বুধবার ভারতের জাতির পিতা মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিনে মোদী ঘোষণা করেন, ‘সারা বিশ^ অবাক হয়ে দেখেছে আমরা মাত্র ৬০ মাসে ৬০ কোটি জনগনের জন্য ১১ কোটি টয়লেটের ব্যবস্থা করেছি। কেউই বিশ^াস করতে পারছে না, এতো অল্প সময়ের মদ্যে ভারত খোলা আকাশের নিচে মলত্যাগ মুক্ত হতে পেরেছে। এখন এটিই বাস্তবতা।’ মোদী প্রথমবার ক্ষমতায় এসেই স্বচ্ছ ভারত অভিযান শুরু করেন। তার সরকার এটিতে সফল অভিযান হিসেবে উদযাপন করছে। কিন্তু বাস্তব পরিস্থিতি বেশ ভিন্ন। ভারতে কাজ করা বিভিন্ন গবেষণা সংস্থার গবেষকরা বলছেন, এমনকি বাড়িতে টয়লেট থাকলেও অনেকেই বাইরেই মলত্যাগে আরাম পান। রাজস্থানের এক নারী সিএনএনকে বলেন, ‘বাড়িতে সরকারি অর্থায়নে টয়লেট তৈরী হয়েছে। কিন্তু এতে আমি স্বস্তি পাইনা। বাইরে খোলা বাতাসে মলত্যাগের মজাই আলাদা। এই আনন্দের সঙ্গে কোনো কিছুর তুলনা হয়না।’ সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]