অনিয়ম ও দুর্নীতি করলে যত বড় নেতা হোন পার পাবেন না, বললেন রাষ্ট্রপতি

আমাদের নতুন সময় : 08/10/2019

ওমর ফারুক : বিশ্ব বসতি দিবস উপলক্ষে গতকাল সোমবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি একথা বলেন।
অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের চলমান অভিযান ‘ইতিবাচক উন্নয়ন রাখবে’ আশা প্রকাশ করে দুর্নীতিবাজদের হুঁশিয়ার করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। -বিডি নিউজ
রাষ্ট্রপতি আরো বলেন, সরকার ইতোমধ্যে সমাজ থেকে অনিয়ম-দুর্নীতি দূর করতে অভিযান শুরু করেছে। আমি আশা করি এ অভিযান দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ইতিবাচক অবদান রাখবে এবং অবকাঠামোসহ উন্নয়নের সকল ক্ষেত্রে গুণগতমান নিশ্চিতে ভূমিকা রাখবে।
১৯৮৫ সালে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে বিশ্ব বসতি দিবস উদযাপনের সিদ্ধান্ত হয়। এরপর থেকে প্রতিবছর অক্টোবর মাসের প্রথম সোমবার এ দিবস পালিত হয়ে আসছে।
বাংলাদেশের সক্ষমতার কথা তুলে ধরে আবদুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশ ইতোমধ্যে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে মধ্য আয়ের দেশে পা রেখেছে। আমরা ২০ তলা ভবন মাত্র ১৩ মাসের মধ্যে নির্মাণ করার সক্ষমতা অর্জন করেছি। কিছু অসাধু লোকের জন্য জাতির এ অর্জন ম্লান হতে পারে না।
গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের কাজে কঠোর তদারকির তাগিদ দিয়ে রাষ্ট্রপতি বলে, বসতি নির্মাণের ক্ষেত্রে গণপূর্ত মন্ত্রণালয় এককভাবে সবচেয়ে বড় প্রতিষ্ঠান। প্রতিবছর এ মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন সংস্থার হাজার হাজার কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে।
এসব প্রকল্পের গুণগত মান কতটুকু নিশ্চিত হচ্ছে, প্রকল্পের টাকা কতটুকু সঠিকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে- তা কঠোরভাবে মনিটরিং করা জরুরি।
রাষ্ট্রপতি বলেন, বিভিন্ন প্রকল্পের অপকীর্তি ও অনিয়ম গণমাধ্যমে প্রায়ই সংবাদ শিরোনাম হচ্ছে।
অনেক সময় ভবনের কাজ শেষ না হতেই ভবনে ফাটল দেখা দেয় বা পলেস্তারা খসে পড়ে। এতে সরকারি কাজের মান নিয়ে জনমনে প্রশ্ন দেখা দেয় এবং সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়। কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর দায় সরকার নেবে না বরং তাদেরকেই তাদের দায় নিতে হবে।
প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ এবং সংশ্লিষ্ট সকলকে দায়িত্ব নিতে হবে মন্তব্য করে আবদুল হামিদ বলেন, প্রকল্পের শুরু থেকে শেষ পর্যšন্ত প্রতিটি কাজের জন্য কর্মকর্তা, প্রকৌশলী ও সংশ্লিষ্ট সকলের দায়িত্ব সুনির্দিষ্টভাবে নির্ধারণ করতে হবে, যাতে প্রকল্পে কোনো ধরনের অনিয়ম বা দুর্নীতি হলে তাৎক্ষণিকভাবে চিহ্নিত করা যায় এবং দায়ী ব্যক্তিকে শাস্তির আওতায় আনা যায়।
এবারের বিশ্ব বসতি দিবসের প্রতিপাদ্য বর্জ্যকে সম্পদে পরিণত করতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারকে অত্যন্ত সময়োপযোগী এবং মানব সভ্যতা ও মানব অস্তিত্বের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বর্ণনা করেন রাষ্ট্রপতি।
বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ অনুষ্ঠানে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী মিয়া সেপ্পো, গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব শহীদ উল্লা খন্দকার বক্তব্য দেন। সম্পাদনা : আবদুল অদুদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]oy.com