• প্রচ্ছদ » » আবরারকে মেরে ফেলা হয়েছে ভিন্নমত প্রকাশের জন্য


আবরারকে মেরে ফেলা হয়েছে ভিন্নমত প্রকাশের জন্য

আমাদের নতুন সময় : 09/10/2019

অনির্বাণ আরিফ : আবরারকে মেরে ফেলা হয়েছে ভিন্নমত প্রকাশের জন্য। অভিজিৎকে মেরে ফেলা হয়েছে ভিন্নমত প্রকাশের জন্য। আবরার ইসলামিস্ট ছিলো। অভিজিৎ স্যেকুলারিস্ট ছিলো। আবরারের হত্যা নিয়ে এখন পর্যন্ত কোনো সেক্যুলার, এথিস্ট, প্রগতিশীল, আওয়ামীপন্থী সমর্থন করেনি, উল্লাস প্রকাশ করেনি। কিন্তু জাতীয় নির্মম ভাষা প্রয়োগ করে হত্যার সমর্থনে বিন্দুমাত্রও সংহতি দেখায়নি বরং প্রতিবাদ জানাচ্ছে। কিন্তু অভিজিতের মৃত্যুর পর ইসলামপন্থীরা জঘন্যতম উল্লাসে ফেটে পড়েছিলো। ইসলামপন্থী সুশীলরাও কিন্তু জাতীয় নির্মম শব্দের প্রয়োগ ঘটিয়ে হত্যাকাÐকে প্রকারান্তরে সাপোর্ট করেছিলো। সে ভীষণ ভয়ানক নির্মমতা আর নিষ্ঠুরতা আমরা কখনো ভুলবো না। কালে কালে মহামানবরা বলে গেছেন মানুষ হতে হলে আগে সেক্যুলার (সহনশীল) হওয়া জরুরি। কারণ সেক্যুলারদের সঙ্গে ধর্মপন্থীদের বড় পার্থক্য হলো মানবিকতার অনুশীলনে, বিবেকের পার্থক্যে। একজন সেক্যুলার কখনো কোনো হত্যাকাÐকে সমর্থন দিতে পারে না। কিন্তু একজন ইসলামপন্থী/ধর্মপন্থী শুধু সমর্থন নয় কখনো কখনো নগ্ন উল্লাসেও ফেটে পড়ে। এর বড় প্রমাণ হতে পারে সাম্প্রতিক দুটি নির্মম প্রেক্ষাপট তথা আবরার এবং অভিজিৎ নামক দুজন তরুণের মৃত্যুকে ঘিরে। অভিজিৎ এবং আবরারদের জন্য প্রার্থনা রইলো। ফ্যাসিবাদীদের প্রতি চ‚ড়ান্ত ঘৃণা রইলো।
২. একজন আইএস সদস্য যদি এসে বলে আমি আইএসের সদস্য। আমি আপনাকে হত্যা করবো। বিশ্বাস করুন তবুও আমি তাকে আঘাত করতে পারবো না। একজন আল কায়েদা সদস্য যদি এসে আমার মাথার উপর তলোয়ার রেখে বলে তোমাকে এখনই হত্যা করা হবে। বিশ্বাস করুন সৌভাগ্যক্রমে তার তলোয়ারটা আমার হাতে আসলেও আমি তাকে হত্যা করবো না। একজন শিবিরকর্মী আমাকে এসে যদি চরম আঘাত করে বিশ্বাস করুন তার প্রতি পাল্টা আঘাত করার ইচ্ছে আমার কোনোভাবেই আসবে না। একজন মাওবাদী এসে যদি বলে আপনার গলা কেটে নেবো। বিশ্বাস করুন তবুও আমি তাকে কটু ভাষায় গালি দিতে পারবো না। কেউ যদি আমাকে বলে আপনি একজনকে আঘাত করবেন বিনিময়ে যা ইচ্ছে পাবেন বিশ্বাস করুন আমি বলবো, আপনার যদি মনে হয় আমি মরে গেলে আপনি বেঁচে যাবেন তবে আমি তাই করবো, কিন্তু কাউকে আঘাত করার মতো জঘন্য কাজ আমি করতে পারবো না। আমি সমালোচনা করি। ক্রিটিক করি। লিখি। কিন্তু আজ পর্যন্ত কাউকে অসম্মান করে একটি কথাও বলিনি। আমার চরম শত্রæ, আমার রাজনৈতিক প্রতিদ্ব›দ্বী, আমার আদর্শের বিরোধী যে কাউকে আমি প্রশ্ন ছুড়ে দিতে ভালোবাসি, কিন্তু ব্যক্তিগত আক্রমণ করতে করি না। আমি বিশ্বাস করি মানুষকে কষ্ট দেয়া, মানুষকে অসম্মান করা পাপ। মানুষকে আঘাত করা অপরাধ এবং মানুষ হত্যা করা মহাপাপ। আবরারের নিথর দেহটা আমাদের সবাইকে অপরাধী করে দিলো। আমরা মানুষ হিসেবে চরম লজ্জিত। আমরা বাংলাদেশি হিসেবে চরম অপরাধী। ক্ষমা করো আবরার। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]