পূর্ববর্তী
পরবর্তী


আমি ক্ষুব্ধ, ব্যথিত, শোকাহত!

আমাদের নতুন সময় : 09/10/2019

এম আবুল হাসনাৎ মিল্টন

এই মুহূর্তে জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। দুর্নীতি ও সন্ত্রাসমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে দলমত নির্বিশেষে সারাদেশের মানুষ শেষ বাজিটি বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার উপরেই রাখতে চায়। জনগণের আকাক্সক্ষার প্রতি সম্মান জানিয়ে শেখ হাসিনাও দুর্নীতি, সন্ত্রাস, মাদকের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করেছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত এই লড়াইয়ের সাফল্যের জন্য আওয়ামী লীগ ও অন্যান্য সহযোগী সংগঠনের রাজনৈতিক সমর্থন গুরুত্বপূর্ণ। তারা কি তা বোঝে? যুবলীগ, ছাত্রলীগের ব্যানারে গত দশ বছরে সারাদেশব্যাপী শত শত দানব তৈরি হয়েছে। রাজনীতি, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ কিংবা শেখ হাসিনার নেতৃত্ব, কোনো কিছুই তাদের বিবেচনায় নেই। রাজনীতি নয়, চাঁদাবাজি-দখল-সন্ত্রাসই যেন তাদের একমাত্র আরাধ্য। ফেসবুকে ভারতবিরোধী স্ট্যাটাস দিয়েছে বলে বুয়েটের দ্বিতীয় বর্ষে অধ্যয়নরত আবরার নামে একজন ছাত্রকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা পিটিয়ে ৬ অক্টোবর রাতে হত্যা করেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাফল্য নিয়ে একটা জরিপের ফলাফল প্রকাশ করলাম, আর আজই তার সাফল্যের গায়ে কালিমা লাগিয়ে দিলো এসব সোনার ছেলেরা। একবার ভাবলোও না এর পরিণতি কী হতে পারে? গত দশ বছর ধরে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায়। সারাদেশে বিশেষ করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে আওয়ামী লীগ ছাড়া কাউকে তো চোখেই পড়ে না আজকাল। এই যখন সারাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবস্থা, বুয়েটে তখন এতো ছাত্রশিবির কোথা থেকে আসে? বুয়েট ছাত্রলীগ তাহলে করেটা কী?
এই যে এখন আবরারকে হত্যা করা হলো, এর জন্য এখন ছাত্রলীগের কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা হবেÑ সবগুলো পরিবারই তো এখন চরম ক্ষতিগ্রস্ত হবে। সন্তান হারানোর শোকে আবরারের পরিবার মূহ্যমান, আর মামলা-জেল নিয়ে হয়রানির মুখে থাকবে আরও কয়েকটি পরিবার। আর দিনের শেষে সব দোষ গিয়ে পড়বে সরকার ও আওয়ামী লীগের উপর। একটা সামান্য ফেসবুক স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে কী করুণ পরিণতি! কার লাভ হলো? পুরো ঘটনায় আমি ক্ষুব্ধ, ব্যথিত এবং শোকাহত। আবরারকে যারা হত্যা করেছে তাদের বিচার সাপেক্ষে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]