• প্রচ্ছদ » » আসলেই ছাত্রলীগ এখন মনস্টার হয়ে গেছে


আসলেই ছাত্রলীগ এখন মনস্টার হয়ে গেছে

আমাদের নতুন সময় : 09/10/2019

প্রভাষ আমিন : যারা পিটিয়েছে, তারাও বুয়েটেরই ছাত্র। তার মানে একাডেমিক বিবেচনায় তারাও মেধাবী। কিন্তু মেধাবী তো দূরের কথা, তারা মানুষই নয় আসলে। সহপাঠী তো দূরের কথা, যেকোনো মানুষকে, মানুষ তো দূরের কথা, এমনকি রাস্তার কুকুরকেও কোনো মানুষ টানা সাত ঘণ্টা ধরে পেটাতে পারে না। এরা মানুষ তো নয়ই, পশুও নয়। কারণ পশু সমাজেও কিছু সিস্টেম আছে। কোনো পশু কখনো বিনা কারণে কাউকে আক্রমণ করে না। বুয়েট ছাত্রলীগের এই ছেলেগুলো মানুষ তো নয়ই, পশুও নয়; এরা দানব, এরা মনস্টার। সাত ঘণ্টা পেটানোর পরও আবরারকে তারা হাসপাতালে নেয়নি, অ্যাম্বুলেন্স ডাকেনি, আবরারের লাশ ফেলে রেখে সেই দানবগুলো স্বাভাবিক ভঙ্গিতে হেঁটে খেতে গেছে। সিসিটিভিতে সবার চেহারা শনাক্ত করা গেছে, ১৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে, ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমি এদের প্রত্যেকের ফাঁসি চাই। এই দানবদের বেঁচে থাকার কোনো অধিকার নেই। এরা শুধু আবরারকে নয়; মানুষের ওপর আমাদের আস্থাকেও খুন করেছে। মানুষের সম্ভাব্য নিষ্ঠুরতার সীমাও অতিক্রম করেছে এরা। তবে আমি জানি, আমার চাওয়া পূরণ হবে না। আগে যদি বিচার হতো, তাহলে আজ আবরারকে প্রাণ দিতে হতো না। প্রকাশ্যে সবার সামনে বিশ্বজিতকে যারা কুপিয়ে মেরেছে, তাদেরও ফাঁসি হয়নি। গত ১১ বছরে ছাত্রলীগের পাপের বোঝা পূর্ণ হয়ে গেছে। হত্যা, ধর্ষণ, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি— হেন কোনো অপরাধ নেই, তারা করেনি। ঐতিহ্যবাহী ছাত্রলীগ আজ দানবদের সংগঠনে পরিণত হয়েছে। এরা নিজেরা তো ডুবেছেই, আওয়ামী অর্জন, উন্নয়ন সব নিয়ে ডুবছে। শেখ হাসিনা বারবার ছাত্রলীগ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন, সাংগঠনিক নেত্রীর পদ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন। কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়নি। ছাত্রলীগ আরও বেপরোয়া হয়েছে। শেখ হাসিনার চলমান শুদ্ধি অভিযানও শুরু হয়েছে ছাত্রলীগকে দিয়েই। চাঁদাবাজির অভিযোগে বহিষ্কার করেছেন ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে। কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হয়নি। আমরা রাজনীতিতে দুর্বৃত্তায়নের কথা বলি। কিন্তু আমরা সেই স্টেজ পেরিয়ে এসেছি। রাজনীতির এখন দানবায়ন চলছে। শোভন-রাব্বানীকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কারের সময় শেখ হাসিনা নাকি বলেছিলেন, এরা ‘মনস্টার’ হয়ে গেছে। আসলেই ছাত্রলীগ এখন মনস্টার হয়ে গেছে। দেশ, জাতি, উন্নয়ন, অগ্রগতি, মানবতার স্বার্থেই এদের দমন করা জরুরি। আর সেটা পারবেন কেবল শেখ হাসিনাই। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]