ছুটি নিয়ে নোয়াব-সাংবাদিক নেতারা মুখোমুখি

আমাদের নতুন সময় : 09/10/2019

 

রফিক আহমেদ : সাংবাদিকদের ছুটির ব্যাপারে নোয়াব এর সভাপতি ও সাংবাদিক নেতারা পরস্পর বিরোধী কথা বলেছেন। নোয়াব সভাপতি বলেন, দূর্গা পুজা, বড় দিন ও বৌদ্ধ পূর্ণিমার ছুটির বিষয়টি আমাদের কমিটির সিদ্ধান্তের মধ্যে নেই।
বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল বলেন, সংবাদপত্র শিল্পে বহু সংখ্যক হিন্দু, বৌদ্ধ ও খৃষ্টান সাংবাদিক ও শ্রমিক কর্মরত আছে। তারা স্বাভাবিকভাবে তাদের এই উৎসব সপরিবারে অংশগ্রহণের অধিকার রাখে। কিন্তু ছুটি না থাকায় তারা এ উৎসব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
এদিকে নিউজ পেপার ওনার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ- নোয়াব এর সভাপতি ও দৈনিক প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, এই ব্যাপারে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আগামীতে সাংবাদিক ইউনিয়ন নেতাদের সঙ্গে আলোচনা হলে ছুটির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হতে পারে।
সম্মিলিত পেশাজীবী ফোরাম এর আহবায়ক শওকত মাহমুদ বলেন, সম্পাদক, মালিক ও সাংবাদিক ইউনিয়নের সকলের সিদ্ধান্তে ছুটির ব্যাপারটি ঠিক হয়েছে, এককভাবে হয়নি। এটা নোয়াব এর একক বিষয় নয়। দূর্গা পুজা, বড় দিন ও বৌদ্ধ পূর্ণিমার দিনে বিশেষ প্রক্রিয়ায় পত্রিকা বের করা হয়। পৃথিবীর অন্যান্য দেশে সংখ্যালঘুদের জন্য সরকারি ছুটি থাকে না। কমিটি করে ছুটির বিষয়ে যা ঠিক করা হয়েছে তা নিয়ে আমার আর কিছু বলার নেই।
ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন- ডিইউজে এর সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধূরী বলেন, অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশে সবার সমান সুযোগ থাকা দরকার। দূর্গা পুজা, বড় দিন ও বৌদ্ধ পূর্ণিমা এ তিনদিন রাষ্ট্রীয়ভাবে ছুটি থাকা দরকার। পৃথিবীর কোনো দেশে পত্রিকা বন্ধ রাখার বিষয়টি নিউজ পেপার ওনার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ নোয়াব এর উপর নির্ভর করে না।
জানা যায়, দুই ঈদের ৬দিন, ঈদে মিলাদুন্নবী, মে দিবস, শবেবরাত, আশুরা ও ১লা বৈশাখ এই ১১ দিন সরকারিভাবে সাংবাদিক ও শ্রমিক কর্মচারীদের জন্য চুক্তি অনুযায়ী ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু এর বাইরে অন্যান্যদিন নিউজ পেপার ওনার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ- নোয়াব ও সাংবাদিক ও শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি অনুযায়ী বিশেষ ব্যবস্থায়ও পত্রিকা বের করা যাবে না। তবে, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২৬ মার্চ, ১৫ আগস্ট, ১৬ ডিসেম্বর, বিজয়ী দশমী, বড়দিন ও বৌদ্ধ পূর্ণিমায় বিশেষ ব্যবস্থাপনায় পত্রিকা বের করা যাবে। কিন্তু এ ক্ষেত্রে সাংবাদিক ও কর্মচারীদেরকে দেড় দিনের বেতন দিতে হবে। সাংবাদিক ও নোয়াবের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তিতে এ সিদ্ধান্ত হয়। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]