বুয়েটের ভিসিস্যার কী নিয়ে ৩৬ ঘণ্টা ব্যস্ত ছিলেন?

আমাদের নতুন সময় : 09/10/2019

 

আর-রাজী, ফেসবুক থেকে : বুয়েটের ভিসি স্যার জানালেন, উনি গত রাতে ১টা পর্যন্ত কাজ করেছেন, আজও খুব ব্যস্ত ছিলেন বলে শিক্ষার্থীদের সামনে আসতে পারেননি। আমার বোকা মাথায় ঢুকছে না, আবরারকে চিকিৎসা দিতে হয়নি, তার লাশের সাথে তাঁকে কুষ্টিয়ায় যেতে হয়নি, উনি আবরারের মা-বাবাকে ফোনও করেননি, কোনো অরাজক পরিস্থিতিও তো তৈরি হয়নি, তাহলে উনি কী কাজে ব্যস্ত ছিলেন? উনি ক্যাম্পাসে ফাহাদের জানাজায় গেছিলেন? শিক্ষার্থী খুন হলে কী কাজ থাকে শিক্ষকের?
আচ্ছা, আবরার ফাহাদের বাবা যখন বুয়েটে এলেন তখন তার সাথে ভিসিস্যার দেখা করলেন না কেন? এটা কি স্বাভাবিক সামাজিকতার অংশ ছিল না? উনি ফাহাদের মা’কে একটা ফোন কল করতে পারেননি কেন? আমাদের শিক্ষকরা কি এতোই অসামাজিক-অমানবিক হয়ে গেছেন? তারা কি এই দেশের, এই সমাজের মানুষ নন? এই দেশটার শিক্ষিত মাথাগুলো এতোটাই নষ্ট হয়ে গেছে?




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]