আবরার হত্যা মামলার চার্জশিট শিগগিরই বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 10/10/2019

 

আনিস তপন : বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, বুয়েটে আপনারা যে নৃশংস হত্যাকা- দেখেছেন, এটা কারো কাম্য নয়। কেন এ হত্যাকা-, কী উদ্দেশ্য ছিল- সবকিছু এখন তদন্ত করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে এ হত্যাকা-ের সঙ্গে যারা জড়িত ও সংশ্লিষ্ট আমরা ভিডিও ফুটেজ দেখে তাদের শনাক্ত করেছি।
তিনি বলেন, মামলায় আবরারের বাবা কিছু নাম দিয়েছিলেন, সেই নামের বাইরেও কিন্তু পুলিশ যাদের সম্পৃক্ততা পাচ্ছে তাদের ধরছে। অমিত সাহা কিংবা যে কেউ হোক আমাদের কাছে ফ্যাক্টর নয়, আমাদের কাছে ফ্যাক্টর সে অপরাধী কিনা, সে অপরাধী হলেই আমরা ধরছি।
টর্চার সেল অনেক ক্লাবে আছে, সেগুলোতেও তল্লাশি হবে কি না- এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, টর্চার সেল একটা ক্লাবে ছিল, সেখানে টেন্ডারবাজির একটা ব্যাপার ছিল। হলগুলোতো ছাত্ররা থাকে। সেখানে টর্চার সেল কতখানি ছিল, কতখানি আছে- সেগুলো আমরা সবই দেখব।
র‌্যাগিং কালচার আইন করে বন্ধ করার কোনো চিন্তা-ভাবনা করছেন কি না- এ বিষয়ে আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, খুব বেশি রকমভাবে এ সংস্কৃতিটা রয়েছে বুয়েট, জাহাঙ্গীরনগর ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে। কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সেভাবে নেই। যারা ছাত্র নেতৃত্ব দেন, যারা বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষ তাদেরও চিন্তা করার সময় হয়েছে। তারা এই সংস্কৃতিথেকে কীভাবে বেরিয়ে আসবেন, আমার মনে হয় এই মুহূর্তে তাদেরও চিন্তা-ভাবনা করা উচিত।
তিনি আরও বলেন, শুদ্ধি অভিযান সবসময়ই হয়। যারা মাত্রার বাইরে চলে গেছে প্রধানমন্ত্রী তাদের ব্যাপারে অ্যাকশন নিচ্ছেন এবং নির্দেশনা দিচ্ছেন। দেশের সুশাসন প্রতিষ্ঠিত করার জন্য যা যা প্রয়োজন আমরা করব। শুদ্ধি অভিযান বলুন, টেন্ডারবাজদের নিয়ন্ত্রণ বলুন, যা কিছু প্রয়োজন হয়- কোনোটাই আমরা বাদ দিচ্ছি না। সম্পাদনা : রমাপ্রসাদ বাবু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]