কিসের ছাত্রলীগ, অপরাধী অপরাধীই, বললেন প্রধানমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 10/10/2019

 

সমীরণ রায় : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) নিহত শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকা-ের বিচারে নিজের অবস্থানের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কীসের ছাত্রলীগ, সে বিবেচনা করব না। এ হত্যাকা-ের বিচার হবেই। অপরাধী অপরাধীই।
গতকাল বুধবার গণভবনে জাতিসংঘের অধিবেশনে ভাষণ ও ভারত সফর বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, অপরাধীর রাজনৈতিক পরিচয় যাই হোক, নিশ্চিত করা হবে সর্বোচ্চ শাস্তি। কেউ যদি কোনো অপরাধ করে তা কোন দলের কে করে সেটা দেখি না। অপরাধী হিসেবেই চিহ্নিত করি। কে ছাত্রদল কে ছাত্রলীগ এ বিবেচনা করব না।
আবরার হত্যাকে ‘অমানবিক’ বলে অভিহিত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, একটা বাচ্চা ছেলে, ২১ বছর বয়স। তাকে কী অমানবিকভাবে হত্যা করেছে। পিটিয়ে পিটিয়ে মেরেছে। এই ঘটনার পরই ছাত্রলীগকে বলেছি অভিযুক্তদের বহিষ্কার করতে। তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে। পুলিশকে বলেছি, অপরাধীদের ধরতে। অনেকেই ধরা পড়েছে। ছাত্ররা নামার আগেই আমরা ব্যবস্থা নিয়েছে।
শেখ হাসিনা বলেন, হিসাব করে দেখুন একটা ছাত্রের পেছনে সরকার কত টাকা খরচ করে? স্বাধীনতা ভালো, কিন্তু সেই স্বাধীনতা বালকের জন্য নয়। যে স্বাধীনতার মর্যাদা দিতে পারবে তার জন্য স্বাধীনতা ভালো। দেখা গেছে একটা রুম নিয়ে মাস্তানি করছে। দশ/বিশ/ত্রিশ টাকা ভাড়া দিয়ে রুম দখল করে মাস্তানি করছে। জনগণের ট্যাক্সের টাকা খরচ হচ্ছে তাদের পেছনে। এটি আমি মানব না। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]