সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ও হলে তল্লাশির নির্দেশ

আমাদের নতুন সময় : 10/10/2019

বাশার নূরু : সারা দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও আবাসিক হলগুলোতে তল্লাশির নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল বুধবার গণভবনে এক সংবাদ সম্মেলন থেকে এ ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী। জাতিসংঘের ৭৪তম সাধারণ অধিবেশন ও ভারত সফরের বিষয়ে দেশবাসীকে অভিহিত করতে বিকেলে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
ভারত সফরে ফেনী নদীর পানি ও এলপি গ্যাস রপ্তানি চুক্তি, পাইপ লাইনে ভারত থেকে ডিজেল আমদানি, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকা-, চলমান ক্যাসিনোসহ শুদ্ধি অভিযান, ছাত্র রাজনীতি, আঞ্চলিক ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়ানোসহ দেশের চলমান রাজনীতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে নানা প্রশ্নের উত্তর দেন প্রধানমন্ত্রী।
গত রোববার রাতে বুয়েট ছাত্র আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করে বুয়েট ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। শেরেবাংলা হলের ওই কক্ষে আরো অনেক শিক্ষার্থীকে নিয়ে মারধর করার অভিযোগ রয়েছে। এই হত্যাকা- নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, যারা এই জঘন্য কাজ করেছে তাদের যতো রকম শাস্তি আছে তা আমি দেবো। আমি কোনো দল দেখব না। আপনজন হারানোর ব্যাথা আমি বুঝি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাকে বলব, এই ঘটনা একটা জায়গায় ঘটেছে যেখানে এক রুম নিয়ে জমিদারি চাল চালানো হচ্ছে, তাহলে প্রত্যেকটা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রতিটি হল সব জায়গায় সার্চ করা দরকার। কোথায় কি আছে না আছে খুঁঁজে বের করা এবং এ ধরনের কারা মাস্তানি করে বেড়ায়, কারা এই ধরনের ঘটায় সেটা দেখা। তিনি বলেন, সামান্য টাকায় সিট ভাড়ায় একেকজন রুমে থাকবে আর তারপর সেখানে বসে এ ধরনের মাস্তানি করবে, আর সমস্ত খরচ বহন করতে হবে জনগণের ট্যাক্সের পয়সা দিয়ে- সেটা কখনো গ্রহণযোগ্য নয়। সারা দেশের প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং প্রতিটি হল সব জায়গায় সার্চ করা হবে।

তল্লাশি চালানোর ব্যাপারে শেখ হাসিনা সাংবাদিকদের সহযোগিতা চেয়ে বলেন, কোথায় অনিয়ম, উচ্ছৃঙ্খলতার মতো কর্মকা- কারা করছে সেটা জানা দরকার। কোনো দল-টল আমি বুঝি না।
ভারত সফরে ফেনী নদী পানি ও এলপি গ্যাস রপ্তানি চুক্তি নিয়ে বিএনপিসহ বিরোধী কয়েকটি দলের সমালোচনার জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের কোনো স্বার্থ শেখ হাসিনা বিক্রি করবে এটা কখনো হতে পারে না। ফেনী নদীর পানি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কেউ যদি পানি পান করতে চায় আর তা যদি আমরা না দেই সেটি কেমন হয়?
দেশের গ্যাস বিক্রির মুচলেখা দিয়ে ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসেছিল বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। ছাত্র রাজনীতি বন্ধের বিষয়টি নাকচ করে তিনি বলেন, এগুলো সেনা শাসকদের কথা। আমি নিজেও ছাত্র রাজনীতি থেকে এসেছি। যারা উড়ে এসে জুড়ে ক্ষমতায় বসে, তারাই ছাত্র রাজনীতি বন্ধের কথা বলে।

সব কিছুতেই প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ লাগছে কেন- এ প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, আমি সরকারপ্রধান, দায় তো আমারই। আমি অন্যদের মতো ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে দেশ চালাই না।
সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন। সম্পাদনা : রমাপ্রসাদ বাবু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]