• প্রচ্ছদ » » আমরা ক্রমশ স্টপিং কোয়েশ্চিনিং পরিস্থিতির দিকে যাচ্ছি মনে রাখতে হবে, একটি প্রশ্নে আঁধার দূর হতে পারে


আমরা ক্রমশ স্টপিং কোয়েশ্চিনিং পরিস্থিতির দিকে যাচ্ছি মনে রাখতে হবে, একটি প্রশ্নে আঁধার দূর হতে পারে

আমাদের নতুন সময় : 11/10/2019

খান মো. রবিউল আলম : প্রশ্ন করতে বুদ্ধিবৃত্তিক ও মানসিক শক্তি লাগে। আমরা ক্রমশ স্টপিং কোয়েশ্চিনিং বা প্রশ্ন বন্ধ করো এমন পরিস্থিতির দিকে যাচ্ছি। এটা অনেকসময় হয়তো পরিস্থিতির কারণে হচ্ছে বা স্বতোপ্রণোদিত হয়ে প্রশ্ন করা বন্ধ করছি। প্রশ্ন বন্ধ হলে সবচেয়ে উপকৃত হয় অযৌক্তিকতা। যুক্তি থেকে সরে গিয়ে তৈরি অযুক্তি দিয়ে অন্ধকার (ঋৎড়স ৎবধংড়হ ঃড় ঁহৎবধংড়হরহম নৎরহমং যঁমব ফধৎশহবংং)। আমরা পরিষ্কার করে প্রশ্ন করতে পারছি না। এর পেছনে হয়তো কাজ করছে ব্যক্তি বা গোষ্ঠী স্বার্থ, দুর্বল নৈতিক অবস্থান আর ভয়ের সংস্কৃতি। উত্তরদাতার পছন্দসই প্রশ্ন করে নৈকট্য লাভে মরিয়া হয়ে পড়ছি। প্রশ্ন আজ সত্য উৎঘাটনের উপায় নয়, নৈকট্য লাভের মোক্ষম হাতিয়ার। পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে, জাতিগতভাবে প্রশ্ন করার সক্ষমতা হারিয়ে ফেলছি। আমরা আজ প্রশ্ন করতে গিয়ে অভিনয় করে ফেলছি। বুদ্ধিবৃত্তিক অক্ষমতা এবং নৈতিক শঠতা মিশেলে তৈরি হচ্ছে ভয়াবহ প্রশ্নআবহ (ছঁবংঃরড়হরহম ঊহারৎড়হসবহঃ)। মনে রাখতে হবে একটি প্রশ্নে আঁধার দূর হতে পারে। সমাজে প্রশ্ন চর্চার অগ্রজ শ্রেণি হলো সাংবাদিক কমিউনিটি। সুনির্দিষ্ট বিষয়ে প্রশ্ন করতে পারা সাংবাদিকতায় এক বিশেষ কলা। কিন্তু আজ বন্ধুদের প্রশ্নে প্রায়শই থাকে অভিবাদন, পটভ‚মি চর্চা, হেয়ালী জিজ্ঞাসা ও আত্মসমর্পন। একটি মান প্রশ্ন মান উত্তরের চেয়ে কম গুরুত্বপূর্ণ নয়। কই সেই প্রশ্ন? পার্লামেন্ট অভিধানে একটা শব্দ আছে যাকে বলে ঋরষরনঁংঃবৎ অর্থাৎ অপ্রয়োজনী দীর্ঘ বক্তব্য দিয়ে মূল লক্ষ্য পৌঁচ্ছার প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করা। গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ইভেন্টে সাংবাদিক বন্ধুদের প্রায়শই অপ্রাসংঙ্গিক কথা বলতে শুনি, আনুগত্য দেখি, দেখি বিষয়কে ডিকন্ট্রেক্স করার ক‚টনৈতিক দক্ষতা। দর্শক বা শ্রোতা হিসেবে চাই মেদহীন বিষয়ভিত্তিক ধারালো প্রশ্ন। এতে নিশ্চিত উত্তরদাতারও কথা বলতে সুবিধে হবে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]