• প্রচ্ছদ » » সাহিত্যের জন্য লেখাপড়া ছেড়ে দেয়া পিটার হান্ডকে ৭৭ বছর বয়সে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পেলেন


সাহিত্যের জন্য লেখাপড়া ছেড়ে দেয়া পিটার হান্ডকে ৭৭ বছর বয়সে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পেলেন

আমাদের নতুন সময় : 11/10/2019

আমিরুল ইসলাম : পিটার হান্ডকে ১৯৪২ সালের ৬ ডিসেম্বর অস্ট্রিয়ার গ্রিফেনে জন্মগ্রহণ করেন। একজন ঔপন্যাসিক, নাট্যকার ও অনুবাদক। তিনি ২০১৯ সালে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। নোবেল বিজয়ী পিটার হান্ডকে প্রসঙ্গে অ্যাকাডেমীর তরফে জানানো হয়, ‘ভাষাগত দক্ষতাকে সঙ্গে নিয়ে মানুষের অভিজ্ঞতার পরিধি এবং তার নির্দিষ্টতা নিয়ে তার যে প্রভাবশালী কাজ, তাকেই সম্মানিত করা হয়েছে।’ পিটার হ্যান্ডকে ও তার মা ১৯৪৪ থেকে ১৯৪৮ সাল পর্যন্ত সোভিয়েত অধ্যুষিত বার্লিনের পানকৌতে বসবাস করতেন। ১৯৫৪ সালে পিটার ক্যারিনথিয়া অঙ্গরাজ্যের তানজেনবার্গ ক্যাসেলে অবস্থিত ক্যাথলিক মারিয়াম বয়েজ বোর্ডিং স্কুলে ভর্তি হন। এখানেই স্কুলের পত্রিকাতে তার প্রথম লেখা ‘ফ্যাকেল’ প্রকাশিত হয়। ১৯৫৯ সালে তিনি ক্লাজেনপুর্টে চলে যান, সেখানে তিনি গিয়ে উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ার জন্য ভর্তি হন এবং ১৯৬১ সালে ইউনিভার্সিটি অব গ্রেজ এ আইনে পড়ার জন্য ভর্তি হয়। হ্যান্ডকে পড়াশোনা অবস্থায় নিজেকে একজন লেখক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন এবং তরুণ লেখকদের সংঘ গ্রেজার গ্রæপ এ যোগ দেন। গ্রæপটি সাহিত্য বিষয়ক বিভিন্ন লেখা প্রকাশ করতো। এটির সদস্যদের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত ছিলেন অ্যালফ্রিয়েড জেলিনেক ও বারবারা ফ্রিস্কমুথ জার্মান প্রকাশনী সুহারক্যাম্প ভার্লেগ তার লেখা উপন্যাস ‘ডাই হর্নিজেন’ প্রকাশের জন্য গ্রহণ করার পর তিনি ১৯৬৫ সালে লেখাপড়া ছেড়ে দেন। পরবর্তীতে গ্রæপ ৪৭ এর একটি সভা আমেরিকার নিউ জার্সিতে তিনি তার লেখা নাটক অফেন্ডিং দ্য অডিয়েন্স উপস্থাপন করেন। তিনি ১৯৬৯ সালে প্রকাশনী ভার্লেগ ডার অটোরেন এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং ১৯৭৩ থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত গ্রেজার অটোরেনভার্সামলুঙ দলের সদস্য ছিলেন। হ্যান্ডকে চলচ্চিত্রের জন্য অসংখ্য স্ক্রিপ্ট লিখেছিলেন। ১৯৭৮ সালে মুক্তি পাওয়া বহ:উরব ষরহশংযব্ধহফরমব ঋৎধঁ এর পরিচালকও ছিলেন তিনি। ১৯৭৫ সালে হ্যান্ডকে ইউরোপীয় সাহিত্য পুরস্কার প্যাট্রারকা প্রিস এ জুরি বোর্ডের সদস্যও ছিলেন। গ্রেজ থেকে চলে আসার পর তিনি বার্লিন, ফ্রান্স এবং ১৯৭৮-১৯৭৯ যুক্তরাষ্ট্রে বাস করেন। পরবর্তীতে তিনি ১৯৭৯ থেকে ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত অস্ট্রিয়ার সালজবার্গে চলে যান। ১৯৯১ সাল থেকে তিনি প্যারিসের কাছাকাছি চ্যাভিল বাস করছেন। তাকে নিয়ে ২০১৬ সালে করিনা বেল্জ পরিচালনায় পিটার হ্যান্ডকে: ইন দ্য ওডস, মাইট বি লেইট নামক প্রামাণ্য চলচ্চিত্র তৈরি করেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]