ইরানের তেলবাহী জাহাজে রকেট হামলা

আমাদের নতুন সময় : 12/10/2019


নূর মাজিদ ও সাবিহা জামান : লোহিত সাগর পাড়ি দেয়ার সময় ইরানের তেলবাহী ট্যাংকার জাহাজে সৌদি উপকূল থেকে নিক্ষিপ্ত দুটি রকেট আঘাত হানে। গতকালের ওই হামলার প্রেক্ষিতে পুনরায় মধ্যপ্রাচ্য থেকে তেল আমদানি ব্যাহত হতে পারে এমন শঙ্কায় বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেলের দর ২ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ে। সুত্রÑ আলজাজিরা
ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন সর্বপ্রথম হামলার খবর প্রকাশ করে। গণমাধ্যমটি জানায়, সৌদির জেদ্দা নগরীর কাছাকাছি সাগরে অবস্থানকালে ইরানের জাতীয় তেল কো¤পানির মালিকানাধীন ট্যাংকার জাহাজ সিনোপাতে রকেট দুটি আঘাত হানে। রকেট হামলায় জাহাজটিতে শক্তিশালী বিস্ফোরণ হলে প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়। ইরানি টেলিভিশনে প্রচারিত সংবাদে জাহাজের খোলস ভেঙ্গে সাগরে তেল চুইয়ে পড়ার চিত্রও দেখানো হয়। বার্তা সংস্থা ইসনা জানায়, এসময় জাহাজে অবস্থানকারী কোন নাবিক হতাহত হন নি এবং তারা সকলেই স¤পূর্ণ নিরাপদ রয়েছেন।
ইরানের জাতীয় ট্যাংকার কো¤পানির বিবৃতিতে বলা হয়, জেদ্দা থেকে ৬০ মাইল দূরে অবস্থানকালে তাদের জাহাজটির ওপর দুটি ক্ষেপণাস্ত্রের সাহায্যে হামলা করা হয়। এদিকে ইরানের তেলবাহী জাহাজে সৌদি হামলার খবর প্রকাশের খবনর ব্যাপক প্রভাব ফেলে বিশ্ববাজারে। গ্রিনিচ মান০৬৪৬ ঘটিকায় লাইট বা ব্রেন্ট ক্রুডের ফিউচারস সূচক ২ দশমিক ৩ শতাংশ বেড়ে ব্যারেলপ্রতি ৬০ দশমিক ৪৬ ডলারে উন্নীত হয়। একইসময় হেভিক্রুডের ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট সূচকও ২ দশমিক ১ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল ৫৪ দশমিক ৪৭ ডলারে কেনাবেচা করা হয়।
এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের জ্বালানি বাজার বিশেষজ্ঞ স্টেফান ইন্স বলেন, বিশ্ববাজারে এখন ওপেকের সরবরাহ আরো সীমিত করার ঘোষণার গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। এর মাঝেই মধ্যপ্রাচ্যের তেল সরবরাহে বিপত্তি দেখা দিলে, তা পুরো জ্বালানি বাজারকেই আন্দোলিত করবে। কারণ, সোউদি-ইরানের যে কোন সংঘাতে এখন পুরো মধ্যপ্রাচ্যের তেল সরবরাহের মাত্রা সংকুচিত হওয়ার ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]