সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে অভিযান অব্যাহত রাখবেন এরদোগান

আমাদের নতুন সময় : 12/10/2019

 

রাশিদ রিয়াজ : সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের রাস আল আইন শহরে তুরস্কের বোমাবর্ষণের পর লক্ষাধিক মানুষ বাড়ি ঘর ছেড়ে পালিয়েছে। উত্তর পূর্ব সিরিয়ায় কুর্দি মিলিশিয়া এবং তুরস্কের সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যে তীব্র যুদ্ধ চলছে। ওই অঞ্চলটিতে মোতায়েন মার্কিন সৈন্যদের প্রত্যাহার করে নেবার পরই এ যুদ্ধ বাঁধে। এরফলে আইএস জঙ্গিরা ফের নতুন করে সশস্ত্র আক্রমণ শুরু করতে পারে বলে আশঙ্কা করছে আন্তর্জাতিক বিশ^। তুরস্কের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থমন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। অন্যদিকে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেছেন, তিনি সিরিয়ায় কুর্দিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাবেন। আরটি/বিবিসি/সিএনএন/মিডিল ইস্ট মনিটর
এদিকে নেদারল্যান্ডস ঘোষণা দিয়েছে প্রেসিডেন্ট এরদোগান সিরিয়ায় এ যুদ্ধ অব্যাহত রাখছেন বলে তারা তুরস্কের কাছে আর অস্ত্র বিক্রি না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ব্র্রিটেন-ভিত্তিক সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস নামে একটি মানবাধিকার সংস্থা বলছে, সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত ১২০ জনেরও বেশি যোদ্ধা নিহত হয়েছে। বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে ২০ জন, এবং লক্ষাধিক মানুষ তাদের বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়েছে।
কুর্দি মিলিশিয়ারা এর আগে ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে যুদ্ধে মার্কিন বাহিনীকে সহায়তা করেছিল, তবে তুরস্ক এই মিলিশিয়াদের সন্ত্রাসী বলে মনে করে। তবে সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিষয়টি ট্রাম্প
প্রশাসনের ভেতরে এবং রিপাব্লিকান নেতাদের দিক থেকেও ব্যাপক সমালোচনার সম্মুখীন হচ্ছে। ফলে এখন তুরস্কের এই অভিযান থামানোর জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভেতর থেকেই চাপ বাড়ছে।
মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মার্ক এসপার এ অভিযানের ‘গুরুতর পরিণতির’ ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছেন এবং অর্থমন্ত্রী স্টিভেন মেনুশিন নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপের সম্ভাবনার কথা বলেছেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অবশ্য ইতিমধ্যে বলেছেন যে তিনি তুরস্ক এবং কুর্দিদের মধ্যে একটি যুদ্ধবিরতি চান। কুর্দি নেতারা যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে তাদের পিঠে ছুরি মারার অভিযোগ এনেছেন। কুর্দি মিলিশিয়াদের নিয়ন্ত্রণে যে বন্দীশিবিরগুলো আছে তাতে হাজার হাজার ইসলামিক স্টেটের যোদ্ধাকে আটক রাখা হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]