• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » রাজস্ব আহরণের ধাক্কা সামলাতে বিশেষ পরামর্শ অর্থমন্ত্রীর, বাজেট ঘোষণার প্রথম ৩ মাসে রাজস্ব ঘাটতি সাত হাজার কোটি টাকা


রাজস্ব আহরণের ধাক্কা সামলাতে বিশেষ পরামর্শ অর্থমন্ত্রীর, বাজেট ঘোষণার প্রথম ৩ মাসে রাজস্ব ঘাটতি সাত হাজার কোটি টাকা

আমাদের নতুন সময় : 13/10/2019

বিশ্বজিৎ দত্ত : ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে অনেকগুলোই লোকসানের মধ্যে রয়েছে। সরকারি উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর বাস্তবায়ণ অগ্রগতী তেমন নেই। এই অবস্থায় বাজেট ঘাটতি বৃদ্ধির মধ্যে পড়তে যাচ্ছে সরকার। আগাম সতর্কতার জন্য গতকাল অর্থমন্ত্রী আহম মোস্তফা কামাল বৈঠক করলেন রাজস্ব বোর্ডের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে। নির্দেশনা দিলেন আগামী দিনের রাজস্ব আয় বৃদ্ধির। অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন এমন একজন কর্মকর্তা জানান, রাজস্ব আদায়ের যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে তা সবাই মিলে চেষ্টা করলে বাস্তবায়ন করতে পারবো। এরজন্য করদাতা বৃদ্ধির জন্য পরামর্শদেন তিনি । রাজস্বখাতে লোকবল বৃদ্ধির জন্য কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জরিপ কাজে লাগানোর জন্য বলেন। এ ছাড়াও তিনি বলেন, কর অঞ্চলগুলোকে এ বছরই উপজেলা পর্যন্ত বিস্তৃত করা হবে।
২০১৯-২০ সালের ৫ লাখ ২৬ হাজার কোটি টাকার বাজেটে রাজস্ব বোর্ডের কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৩ লাখ ২৫ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। আর মোট বাজেট ঘাটতি ধরা হয়েছে ১ লাখ ৪৫ হাজার ৩৮০ কোটি টাকার। ব্যাংক, সঞ্চয়পত্র ও বৈদেশিক ঋণ থেকে ঘাটতি পূরণ করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। কিন্তু অর্থবছর শুরুর ৩ মাসের মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড নিয়ন্ত্রিত কর লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারেনি। বাজেটে রাজস্ব বোর্ডের কর আদায়ের প্রবৃদ্ধি নির্ধারণ করা হয়েছিল ১৮ দশমিক ১ শতাংশ। কিন্তু রাজস্ব বোর্ড আদায় করেছে আয়কর ১৫ শতাংশ। ভ্যাট ১২ শতাংশ ও কাস্টমস রয়েছে ৮ শতাংশের কাছাকাছি। রাজস্ব বোর্ড সূত্রে জানাযায়, বাজেটে ঘোষণার প্রথম ৩ মাসে রাজস্ব ঘাটতি রয়েছে প্রায় ৭ হাজার কোটি টাকা।
আয়করের দুটি প্রধান উৎস্য হলো উৎস্যে কর ও ব্যাংকগুলোর আয়। বৃহৎকরদাতা অঞ্চল থেকে আয় করের ৫৫ শতাংশ আদায় হয়। আর কর অঞ্চল ১ ও ২ থেকে আদয়া হয় মোট করের ২৫ শতাংশ। এ দুটি কর অঞ্চলের কর্মকর্তারা জানান, গত বছর দুটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান প্রায় দেওলিয়া হয়ে গেছে। ১০টি রয়েছে লোকসানে। ২০টি ব্যাংকের আয় কমে গেছে। অন্তত ৩টি ব্যাংক ঝুঁকিতে রয়েছে। সব মিলিয়ে এলটিইউর আদায় প্রথম কোয়ার্টারে হয়েছে ৪ হাজার কোটি টাকা। যা লক্ষ্য মাত্রার চেয়ে প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা কম।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]